fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

ফের বিতর্কে রাফাল, চুক্তির শর্ত মানেনি ফরাসি সংস্থা, স্পষ্ট জানাল সিএজি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আবারও বিতর্কে জড়াল রাফাল। জানা গিয়েছে, বুধবার সংসদে পেশ করা রিপোর্টে কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল জানায় যে চুক্তির শর্ত মেনে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের গবেষণা সংস্থা ডিআরডিও-কে প্রযুক্তি দিয়ে সাহায্য করছে না রাফাল নির্মাণকারী ফরাসি সংস্থা ডাস্যু অ্যাভিয়েশন এবং এমবিডিএ।

প্রসঙ্গত, রাফাল চুক্তিতে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হ্যালকে বঞ্চিত করে অনিল অম্বানির সংস্থাকে বরাত পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। এই বিষয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। ২০১৬-র সেপ্টেম্বরে ৫৯,০০০ কোটি টাকার বিনিময়ে ৩৬টি রাফাল যুদ্ধ বিমান কেনার চুক্তি করে ভারত সরকার। এর মধ্যে পাঁচটি রাফাল ইতোমধ্যে ভারতে চলে এসেছে। লাদাখে টহলদারিও করছে সেগুলি।

   আরও পড়ুন: সংখ্যালঘুদের নিয়ে তোষণের রাজনীতি করছে বাংলার মমতা সরকার: কাশেম আলী

ডাস্যু অ্যাভিয়েশন এবং এমবিডিএ-র সঙ্গে রাফাল চুক্তির অন্যতম শর্ত ছিল ফরাসি সংস্থা চুক্তি-মূল্যের ৫০ শতাংশ মূল্যের প্রকল্প বা কাজের বরাত ভারতের কোনও সংস্থাকে দেবে বা প্রযুক্তিগত ভাবে সাহায্য করবে। সেই সূত্রেই ডাস্যু অনিল অম্বানির সংস্থা রিলায়্যান্স ডিফেন্সের সঙ্গে চুক্তি করে। এদিকে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হ্যালের পরিবর্তে ডাস্যু রিলায়েন্স ডিফেন্সের সঙ্গে চুক্তি করায় এর পেছনে দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গাঁধী। বুধবার সংসদে পেশ করা রিপোর্টে সিএজি বলেছে, ডাস্যু ও এমবিডিএ প্রাথমিক ভাবে প্রস্তাব দিয়েছিল যে চুক্তির শর্তের ৩০ শতাংশ পূরণ করতে তারা ডিআরডিও-কে উন্নত মানের সামরিক প্রযুক্তি সরবরাহ করবে। ডিআরডিও হালকা ওজনের যুদ্ধবিমানের জন্য কাবেরী নামক ইঞ্জিন তৈরি করতে এই প্রযুক্তিগত সাহায্য চেয়েছিল।

 

সংসদের বাদল অধিবেশনের শেষ দিনে পেশ করা রিপোর্টে সিএজি জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত ডাস্যু এই প্রযুক্তিগত সাহায্য দেয়নি এবং কবে নাগাদ এই সাহায্য পাওয়া যাবে তাও এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলেনি। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেয় রাফাল।

Related Articles

Back to top button
Close