fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়তে মিড ডে মিলে ছোলা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা আবহে ছাত্র ছাত্রীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবার থেকে মিড্ ডে  মিলের সঙ্গে দেওয়া হবে ছোলা। সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। ছোলা মূলত শিশু ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে প্রোটিনের মাত্রা বাড়াবে। তাই বুধবারই এক নির্দেশিকা জারি করে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর এ কথা জানিয়েছে।
নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, অগাস্ট মাসে যে মিড ডে মিল দেওয়া হবে সেই মিড ডে মিলের সঙ্গে প্রত্যেক ছাত্র ছাত্রীকে এক কেজি করে ছোলা দিতে হবে। তবে সেই ছোলা স্কুলের তরফেই কিনে দেওয়া হবে নাকি রাজ্য খাদ্য দফতরের তরফে পাঠানো হবে সে বিষয়ে অবশ্য নির্দিষ্ট করে কিছু বলা হয়নি নির্দেশিকায়। অগাস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহেই আবারও মিড ডে মিল দেওয়ার কথা রয়েছে অভিভাবক অভিভাবিকাদের। গতবার স্যানিটাইজার ও ডাল দেওয়া হয়েছে মিড ডে মিলের সঙ্গে। এই মাসে মিড ডে মিলে স্যানিটাইজার বা ডাল কোনটি বাদ যাবে, বা এটিও আদৌও বাদ যাবে কি না, সে বিষয়ে অবশ্য এখনও পর্যন্ত নির্দিষ্ট করে নির্দেশিকা জারি হয়নি রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে।
রাজ্যে লকডাউন শুরুর পর থেকেই স্কুল মারফত অভিভাবকদের মিড ডে মিল তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। মিড ডে মিলের মাধ্যমে প্রথম দিকে আলু ও চাল দেওয়া হচ্ছিল ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের। ইতিমধ্যেই মিড ডে মিলের বরাদ্দ বাড়িয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য উভয়েই। প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি এবং ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণী এই দুই পর্যায়ে বরাদ্দ বেড়েছে মিড ডে মিলের। জুলাই মাসে দেওয়া মিড ডে মিলের সঙ্গে দেওয়া হয়েছিল দু’‌কেজি করে চাল ও আলু ,২৫০ গ্রাম মসুর ডাল এবং একটি করে স্যানিটাইজার। যদিও তার সঙ্গে অ্যাক্টিভিটি টাস্ক সম্পর্কিত একটি খাতাও দেওয়া হয়েছিল। অর্থাৎ ছাত্র-ছাত্রীরা এখনও পর্যন্ত কি কি পড়েছে, কোথায় কোথায় বুঝতে অসুবিধা হয়েছে সে সংক্রান্ত একটি অ্যাক্টিভিটি টাস্ক সম্বলিত খাতা ও দেওয়া হয়। অগাস্ট মাসের মিড ডে মিলে এবার তার সঙ্গেই যুক্ত হতে চলেছে ছোলা।
স্কুল শিক্ষা দফতরের আধিকারিকদের কথায়, বর্তমানে প্রেক্ষাপটে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রকোপ বেড়েছে আগের তুলনায়। তাই ছাত্র-ছাত্রী ও শিশুদের শরীরে প্রোটিন বৃদ্ধির জন্য ছোলা ভালো কাজ করতে পারে। সেজন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে মিড ডে মিল এর সঙ্গে কি কি দেওয়া হবে চাল,আলু ও ছোলার পাশাপাশি সেই সম্পর্কে বিস্তারিত নির্দেশিকা শীঘ্রই রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে জারি করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close