fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

টিউবওয়েল থেকে বেরোচ্ছে গ্যাস! আর সেই গ‍্যাস থেকে হচ্ছে রান্না, আজব ঘটনা পূর্ব মেদিনীপুরে

মিলন পণ্ডা, সুতাহাটা(পূর্ব মেদিনীপুর): আজব ঘটনা। গ্রামের মানুষজনের সুবিধার্থে গত দু’মাস আগে তৈরি হয়েছে একটি নতুন টিউবওয়েল। আর সেই টিউবওয়েল থেকে নাকি বের হচ্ছে গ্যাস। আর সেই গ্যাসকে কাজে লাগিয়ে করা হচ্ছে রান্নাবান্না। এমনই আজব ঘটনা পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া মহকুমা সুতাহাটার খড়িবেড়িয়া গ্রামে। গ্রামের বেশ কয়েকটি বাড়িতে ইতিমধ্যে ওই গ্যাসকে কাজে লাগিয়ে চলছে রান্নার কাজ। তবে যে কোন মুহূর্তে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কায় আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা।

জানা গেছে, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া মহকুমা সুতাহাটাr প্রত্যন্ত গ্রাম খড়িবেড়িয়া। যেখানে দীর্ঘদিনের পানীয় জলের সমস্যা রয়েছে। আর সেই সমস্যা মেটানোর জন্য হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদের কাছে পানীয় জলের কলের জন্য আবেদন জানিয়েছিল স্থানীয় বাসিন্দারা। স্থানীয়দের আবেদনে সাড়া দিয়ে গ্রামে হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদের পক্ষ থেকে বসানো হয়েছে একটি পানীয় জলের জন্য নলকুপ। গত দু’মাস আগে সেই কাজ সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু এই কল থেকে জলের পাশাপাশি বাড়তি পাওনা হিসেবে মিলছে রান্না করার গ্যাস। গত দু’মাস আগে টিউবওয়েল তৈরীর কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর থেকেই কলের গোড়া থেকে বের হচ্ছে এক ধরনের গ্যাস। যেখানে দেশলাই কাঠি দিয়ে আগুন ধরালে দেদার আগুন জ্বলছে।

[আরও পড়ুন- বেহাল রাস্তা সারাইয়ের দাবিতে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ]

প্রথমে স্থানীয় মানুষজন সন্দেহ করেছিলেন নতুন কলের জন্য হয়তো এমন ধরনের ঘটনা ঘটছে পরে হয়ত তা ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু সেই পর আজ প্রায় দু’মাস হতে চললো। কিন্তু কলের গড়া থেকে বের হওয়া গ্যাস দিয়ে দেদার জ্বলছে আগুন। তা উপভোগ করতে ছাড়েননি স্থানীয় বাসিন্দারা। একেবারে পাইপ লাগিয়ে গ্রামের বেশ কয়েকটি বাড়িতে চলছে রান্নাবান্না। টিউবওয়েলের কল থেকে এভাবে নিষ্কাশিত গ্যাসকে কাজে লাগিয়ে রান্নার ঘটনায় হতবাক সকলে। ইতিমধ্যে স্থানীয় থানায় এই ঘটনার খবর জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তবে এখন রান্নার সুবিধা মিললেও যে কোন মুহূর্তে দুর্ঘটনা ঘটার আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।  গ্রামের বাসিন্দা শেখ হাবিবুর রহমান বলেন, “কল বসানোর প্রথম থেকে এভাবে গ্যাস বেরোতে দেখছি।  প্রথমে ভেবেছিলাম নতুন কলের জন্য এভাবে গ্যাস বের হচ্ছে। কিন্তু এভাবে দিনের পর দিন গ্যাস বের হওয়াতে আমরা তা রান্নার কাজে লাগাচ্ছি।”যদিও প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

 

Related Articles

Back to top button
Close