fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাজ্যে ‘গো অ্যাজ ইউ লাইক সরকার চলছে’ ,মমতাকে তোপ রাহুল সিনহার

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: ফের সম্পূর্ণ লকডাউনের দিনবদল, অনলাইনে কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে ইচ্ছা মতো ফিস, বেসরকারি হাসপাতালে করোনা রোগিদের কাছ থেকে লাগামছাড়া টাকা নেওয়ার অভিযোগ অব্যাহত। আর এ নিয়েই মুখ খুললেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা। তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দেখে বলেন, ‘রাজ্যে একটা ‘ গো অ্যাজ ইউ লাইক’ সরকার চলছে।’ বুধবার বিজেপির রাজ্য দফতরে তিনি ফের সম্পূর্ণ লকডাউনের দিন পরিবর্তন নিয়ে বলেন,’এই নিয়ে ছ বার হলো। অপদার্থ, অযোগ্য সরকার। পরপর ৫ দিন ব্যাঙ্ক বন্ধের দোহাই দিচ্ছেন, আসল কারণটা বলছেন না, সত্যি কথাটা বলছেন না। আসল কারণ হল ২৮ তারিখ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জন্মদিন, আর ২৯ তারিখ মহরম।’

রাহুল বলেন, ‘ এমন অযোগ্য তৃণমূল সরকার যে তাদের ছাত্রপরিষদের জন্মদিন ভুলে গিয়েছে। আর ২৯ তারিখতো লকডাউন করাই যাবে না। কারণ ওইদিন মহরম। ফলে লকডাউনের সূচি থেকে একদিন কমে গেল। আসলে রাজনৈতিক ও সাম্প্রদায়িক সুড়সুড়ি দিয়ে লকডাউন তুলে নেওয়া হল।’  তিনি বেসরকারি স্কুলে বাড়তি ফিস ও কলেজে অনলাইনে ভর্তির জন্য লাগামছাড়া ফিস, বেসরকারি হাসপাতালে করোনা রোগিদের লাগামছাড়া বিল নেওয়ার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দাগেন। তিনি বলেন, ‘ করোনা রোগি আর স্কুল, কলেজের ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের পকেট কেটে তৃণমূলের নির্বাচনী ফাণ্ড হচ্ছে। তাই মুখ্যমন্ত্রী বলা সত্ত্বেও বেসরকারি স্কুল, হাসপাতাল কেউ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা শুনছে না। তাই বলছিলাম রাজ্যে ‘ গো অ্যাজ ইউ লাইক’ সরকার চলছে। আর মুখ্যমন্ত্রী শুধু বিবৃতি দিচ্ছেন। রাজ্য একটা অন্ধকারময় রাজত্বে ঢুকে গিয়েছে আর সেই আঁধার রাজ্যের রানি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।’

আরও পড়ুন: ‘পুলিশ দিয়ে, কেস দিয়ে বিজেপিকে রোখা যাবে না’: দিলীপ ঘোষ

নবান্ন থেকে উপান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয় সরানো প্রসঙ্গে বলেন, ‘ মহাকরণ থেকে নবান্ন, এখন নবান্ন থেকে উপান্নে যাচ্ছেন। একুশে উপান্ন থেকে কালিঘাটে ফিরে যাবেন।’ একইসঙ্গে মহাকরণ সংস্কারে মুখ্যমন্ত্রীর উদাসীনতা নিয়েও তোপ দাগেন রাহুল। তিনি বলেন, ‘ মহাকরণ একটা ঐতিহ্য মণ্ডিত স্থান। নবান্নে গিয়ে মহাকরণকে অবজ্ঞা করা ঠিক নয়। মহাকরণের কোন অংশ যদি দেখভালের অভাবে ভেঙে পড়ে আর কেউ আহত বা নিহত হন উনিতো তখন অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপাবেন।

Related Articles

Back to top button
Close