fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের বেলিয়াবেড়া রাজবাড়ীতে রাজার তরবারি ও কলা বৌ কে মা দুর্গা রূপে পুজা করা হয়

সুদর্শন বেরা, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের বেলিয়াবেড়া গ্রামে রাজপরিবারের দুর্গাপুজো প্রায় ৫০০ বছরের পুরনো। বেলিয়াবেড়া রাজপরিবারের দুর্গাপুজোর ঐতিহ্য রাজার তরবারি এবং কলা বউকে মা দুর্গা রূপে পুজো করা হয়। যা ৫০০ বছর ধরে চলে আসছে। বর্তমানে রাজানেই, রাজত্ব নেই,নেই সেই আধিপত্য, কিন্তু আভিজাত্য এখনো বজায় রয়েছে রাজ পরিবারের সদস্যদের। তাই প্রথা মেনে বেলিয়াবেড়া রাজপরিবারে ষষ্ঠীর দিন থেকে শুরু হয়েছে দুর্গাপুজো। উড়িষ্যার রাজা কৃষ্ণচন্দ্র দাস প্রহরাজ এলাকায় প্রথম দুর্গাপুজো শুরু করেন। রাজ বাড়ি সপ্তম থেকে দশমী পর্যন্ত যজ্ঞ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানালেন রাজপরিবারের সদস্য বিশ্বজিৎ দাস প্রহরাজ। তিনি বলেন প্রতিবছর উড়িয়া নিয়ম মেনে দুর্গাপুজোর আয়োজন করা হয়। আগে দুর্গাপুজোর অনুষ্ঠান ছিল জাঁকজমক দেখার মত কিন্তু বর্তমানে কেবলমাত্র নিয়ম-রক্ষার পুজো হয়। প্রতিবছর সপ্তমী থেকে দশমী পর্যন্ত বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে পরিবারের সদস্যরা। করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই এবছর সমস্ত অনুষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। তবে পুজোর অনুষ্ঠান বন্ধ করা হয়নি।

উড়িয়া নিয়ম মেনেই এবছর ষষ্ঠীর দিন থেকে বেলিয়াবেরা রাজপরিবারের দুর্গাপুজো শুরু হয়েছে। ওই পুজোকে কেন্দ্র করে এলাকার মানুষের মধ্যে এখনও যথেষ্ট উৎসাহ রয়েছে। আগে পুজোর সময় রাজবাড়ীতে বহু মানুষ প্রসাদ গ্রহণ করতেন ।কিন্তু সেই নিয়ম থাকলেও করোনার জন্য এবছর তাও বাতিল করা হয়েছে। তবে পুজোয় কোন খামতি থাকছে না।তাই রাজার তরবারি ও কলাবৌকে রাজ বাড়ির দুর্গা দালানে সুন্দর করে সাজানো হয়েছে। প্রশাসনের নির্দেশ মেনে করো না পরিস্থিতির জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবছর বেলিয়াবেড়া রাজবাড়ির দুর্গাপুজো শুরু হয়েছে। তবে রাজবাড়ির পক্ষ থেকে ওই অনুষ্ঠানে আসা সকলকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলার ও মুখে মাস্ক ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক ভাবে জানানো হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close