fbpx
দেশশিক্ষা-কর্মজীবনহেডলাইন

করোনা সংক্রমণের মাঝেই স্কুল খুলতে চায় কেন্দ্র? শুরু হল প্রস্তুতি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  দেশে বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণের হার। ইতিমধ্যেই দেশে আনলকের তৃতীয় পর্যায় চলছে। এহেন পরিস্থিতিতে স্কুল খোলার কথা ভাবনা-চিন্তা করছে কেন্দ্র।

সূত্রের খবর, সেপ্টেম্বরের গোড়া থেকেই স্কুল চালু করে দিয়ে চাইছে শিক্ষা মন্ত্রক। আর তা নিয়ে ঘোর আপত্তি অভিভাবক ও শিক্ষা মহলের।

শুক্রবার দেশে সর্বাধিক করোনা সংক্রমণ ঘটেছে। আর ঠিক সেদিন থেকেই স্কুল খোলার তোরজোড় শুরু করল কেন্দ্র সরকার। এই সংক্রান্ত ‘এসওপি’ (SOP) তৈরির কাজ ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক (Home Ministry)। সেখানেই জানানো হবে, কী ভাবে পর্যায়ক্রমে স্কুল-কলেজ খোলা যেতে পারে। কেন্দ্র চাইছে, প্রথমে দশম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পঠনপাঠন শুরু করতে।

সেক্ষেত্রে কোনও একটি শ্রেণির সমস্ত পড়ুয়া এক দিনে ক্লাস করতে পারবে না। টানা ৭-৮ ঘণ্টা স্কুল এখন অতীত। ২-৩ ঘণ্টার ক্লাস করাই এখন নিউ নরম্যাল। প্রয়োজনে ক্লাসগুলিকে একাধিক পর্যায়ে ভেঙে নেওয়া হতে পারে।

স্কুলে থাকাকালীন কড়াভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে সকল ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীদের। তবে দেশের সর্বত্রই এখনই স্কুল খোলা হবে না। দেশের যে রাজ্যগুলিতে সংক্রমণ কম, সেখানে পরীক্ষামূলকভাবে স্কুল চালু হবে।

সূত্রের খবর, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের গোড়া থেকে স্কুল-কলেজ খোলার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধনের সঙ্গে বৈঠকও করে ফেলেছেন শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল ৷ সরকারি সূত্রে খবর, যে রাজ্যগুলিতে করোনার প্রকোপ কম, সেখানকার সরকারগুলির তরফে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রকে অনুরোধ করা হয়েছে দ্রুত স্কুল খোলার জন্য৷ এর একটা মূল কারণ হল, অনলাইনে ক্লাস করতে গিয়ে প্রবল সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকা শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের।

স্কুল খোলার সময় সম্পর্কে রাজ্যগুলিকে চিঠিও দিয়েছিল কেন্দ্র সরকার। তার উত্তরে দিল্লি, অন্ধ্রপ্রদেশ, হরিয়ানা, কর্ণাটক, রাজস্থান-সহ একাধিক রাজ্য জানিয়েছে, তার সেপ্টেম্বরের গোড়াতেই স্কুল চালু করতে চায়। কিন্তু জবাব মেলেনি বাংলার তরফ থেকে।

Related Articles

Back to top button
Close