fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

টাকা না পেয়ে দিদিমাকে শ্বাসরোধ করে খুন, গ্রেফতার নাতি

মিলন পণ্ডা, এগরা (পূর্ব মেদিনীপুর): দাবি মতো টাকা না পেয়ে দিদিমাকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠল নাতির বিরুদ্ধে। এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা থানার আলংগিরি এলাকায়। অভিযোগের ভিত্তিতে খুনি নাতিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এগরা থানার পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত যুবকের নাম রাজা দেবনাথ। বুধবার অভিযুক্তকে কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তার জামিন নাকচ করে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজা ভিন রাজ্যে পরিযায়ী শ্রমিক ছিলেন। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জেরে লকডাউনের কারণে বাড়ি ফেরে রাজা। এরপর থেকে প্রায়ই দিদিমাকে টাকার জন্য চাপ দিত রাজা বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি। বেশ কয়েকবার টাকা দিলেও পরে টাকা দিতে অস্বীকার করে বৃদ্ধা দিদিমা। ১ অক্টোবর সন্ধ্যায় মদ্যপান করে বাড়ি ফিরে রাজা বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি। এরপর দিদিমাকে টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। সেই টাকা দিতে অস্বীকার করে দিদিমা বলে অভিযোগ। আক্রোশ বশত গলায় গামছার ফাঁস লাগিয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে রাজা বলে অভিযোগ। তারপরেই বাড়ি খাটের উপর দিদিমাকে শুইয়ে দিয়ে বাড়ির তালা বন্ধ করে এলাকা ছেড়ে চম্পট দেয় নাতি।

আরও পড়ুন: পশ্চিমবঙ্গে বেকারত্ব সমস্যা বিজেপিই মেটাবে… ১০টা শূন্যপদ পূরণের জন্য এক লক্ষ আবেদন পত্র!

স্থানীয় বাসিন্দাদের সন্দেহ হলে ছুটে এসে দেখে বৃদ্ধা সংজ্ঞাহীন অবস্থায় খাটের উপর শুয়ে রয়েছে। খবর দেওয়া হয় এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য সহ একাধিক জন প্রতিনিধিদের। পাশাপাশি ঘটনাস্থলে ছুটে আসে এগরা থানার পুলিশ। দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক কামিনী দেবনাথ (৬৮)-কে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে পাঠান।

এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য অজিত মাইতি এগরা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ তদন্তে নেমে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তকে কাঁথি মহকুমা আদালত থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিজেদের হেফাজতে নেয় পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে রাজা খুনের কথা কবুল করেছে বলে বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে। এগরা থানার এক পুলিশ আধিকারিক বলেন গোটা ঘটনায় তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে এলেই মৃত্যুর কারণ অনেকটাই পরিষ্কার হবে। যদিও তদন্তের স্বার্থে বেশি কিছু জানাতে রাজি হয়নি পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close