fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

নমাজের সময় নাইজেরিয়ার মসজিদে বন্দুকবাজের হামলা, মৃত ইমাম-সহ ৫

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: নমাজের সময় মসজিদে হামলা চালিয়ে একজন ইমাম-সহ পাঁচজনকে খুন করল অজ্ঞাত পরিচয়ের দুষ্কৃতীরা। ওই মসজিদে নমাজ পড়ার জন্য হাজির থাকা ৪০ জনকে অপহরণ করেছে তারা। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে নাইজেরিয়া’র উত্তর-পশ্চিম দিকে অবস্থিত জামফারা প্রদেশে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানান গিয়েছে, নাইজেরিয়ার স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে নমাজ পড়ার জন্য জামফারা প্রদেশের মারু জেলার দুতসেন গারি গ্রামের একটি মসজিদে জড়ো হয়েছিলেন ওই এলাকার প্রায় ১০০ জন মানুষ। সেসময় অজ্ঞাত পরিচয়ের একদল বন্দুকবাজ আচমকা সেখানে হামলা চালায়। তারপর এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে পাঁচজনকে হত্যা করে। আর ৪০ জন মানুষকে অপহরণ করে একটি বাসে চাপিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তদন্ত শুরু করলেও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। উদ্ধার করা যায়নি অপহৃতদেরও।

এপ্রসঙ্গে জামফারা পুলিশের মুখপাত্র মহম্মদ শেহু জানান, শুক্রবার নমাজ পড়ার জন্য ওই মসজিদে ১০০ জনের বেশি মুসল্লি জড়ো হয়েছিলেন। মসজিদের ইমাম যখন সবাইকে নমাজ পড়াচ্ছিলেন সেসময় আচমকা মোটরবাইকে করে এসে সেখানে হামলা চালায় একদল বন্দুকবাজ। পাঁচজনকে গুলিবিদ্ধ করে। এর ফলে দুজনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় আর বাকি তিন জন হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন থাকা অবস্থায় মারা যান। ঘটনাস্থল থেকে ৪০ জনকে অপহরণও করে বন্দুকবাজের দল। বর্তমানে গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে তল্লাশি চালাচ্ছেন পুলিশ ও অন্য নিরাপত্তারক্ষীরা।

আরও পড়ুন: বিয়ের অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি হলেই ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, ঘোষণা রাজস্থান সরকারের

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, এই এলাকায় বসবাসকারী ফুলানি সম্প্রদায়ের মানুষদের গরু চুরি করার চেষ্টা করে উপজাতি গোষ্ঠীর কৃষকরা। শুক্রবার সেরকমই একটি দল ওই মসজিদে হামলা চালিয়েছিল। বেশ কয়েক বছর ধরেই এই ঘটনা ঘটছে। এর ফলে এখনও পর্যন্ত ২ হাজারের কাছাকাছি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ঘরছাড়া হয়েছেন আরও কয়েক হাজার। হামলার পর হামলাকারীরা পাশের একটি জঙ্গলে চলে যায়। ঘটনার খবর পেতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে আর হামলাকারীদের তল্লাশি শুরু করে দেয়। সম্প্রতি দিনে নাইজিরিয়ার উত্তর পশ্চিম অঞ্চলে লুটপাট, অপহরণ সমেত নানারকম অপরাধীক মামলা বেড়েই চলেছে।

 

 

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close