fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ের পালসিটে ‘হল্ট হাব’ তৈরির উদ্যোগ রাজ্য সরকারের

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: দুর্গাপুর এক্সেপ্রেসওয়ের পূর্ব বর্ধমানের পালসিট টোলপ্লাজার কাছে ‘হল্ট হাব’তৈরির উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। সোমবার হল্ট হাবের শিলান্যাস করলেন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। শিলান্যাস অনুষ্ঠানে দক্ষিনবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার চেয়ারম্যান দীপ্তাংশু চৌধুরীও উপস্থিত ছিলেন। যাত্রী স্বার্থে হল্ট হাবে  সবরকম পরিষেবা পাওয়ার ব্যবস্থা তৈরি রাখার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। দীপ্তাংশু চৌধুরী জানিয়েছেন যে, পিপিপি মডেলে  আগামী জানুয়ারি মাস থেকে মোট ৮ একর জায়গা জুড়ে তৈরি হবে আধুনিক ‘হল্ট হাব’।

কলকাতা থেকে দুর্গাপুর যাওয়ার লেনের বাঁদিকে‘ হল্ট হাবটি ’  তৈরি হতে চলেছে। হাব তৈরি হয়ে গেলে প্রতিদিন প্রচুর যাত্রী সেখানে নেমে খাওয়া দাওয়া সারতে পারবেন। পাশাপাশি হাবে থাকবে টয়লেট। যাত্রীরা পয়সা দিয়ে টয়লেট ব্যবহার করতে পারবেন। হাবে বাঙালী খাবার মাছ ভাতের পাশাপাশি থাকবে দক্ষিণী খাবার ও পাঞ্জাবি খাবার মিলবে। এ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা ও মেডিকেল ব্যবস্থাও থাকবে। কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি  যাতে দ্রুত চিকিৎসা পান তার  সব রকম ব্যবস্থাপনা ‘হল্ট  হবে’ থাকবে। এছাড়াও  ২ নম্বর জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনা ঘটলে জখমদের হাসপাতালে পাঠানের জন্যেও ২৪ ঘন্টা  এ্যাম্বুলেন্স পরিষেবার ব্যবস্থা হাবে  রাখা হবে।

আরও পড়ুন- নন্দীগ্রামে রাস উৎসবে এসে শোনালেন হরিনামের মাহাত্ম্য, নিজের অবস্থান জিইয়ে রাখলেন শুভেন্দু

মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন, পূর্বে  দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার সাড়ে চারশো বাস ছিল। এই সরকারের আমলে তা বেড়ে হয়েছে সাড়ে ন’শো। পালসিটে ‘হল্ট  হাব’ চালু হলে বহু মানুষের কর্মসংস্থান হবে। অনেকে এই চত্ত্বরে  চায়ের দোকান, ফুচকার দোকান বসাবেন। অত্যাধুনিক‘হল্ট হাবে’ রাতে থাকার জন্য ঘরও থাকবে। হাব তৈরির কাজ দ্রুত শেষ করে তা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close