fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার পূর্ব মেদিনীপুরে, পরিবারের অভিযোগের তির শাসকদলের প্রতি

মিলন পণ্ডা, পূর্ব মেদিনীপুর: বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রামনগর থানার অর্জনি গ্রামে। পরিবারের পক্ষ থেকে বিজেপি করার অপরাধে খুন হতে হল বলে দাবি করা হয়েছে। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে শাসকদল। মৃতের নাম পূর্ণচন্দ্র দাস (৪৪)। এই ঘটনার পরই গোটা এলাকা রাজনৈতিক উওেজনা ছড়িয়েছে।

জানা গিয়েছে, পূর্ণচন্দ্র অর্জুন বুথের সক্রিয় বিজেপি কর্মী ছিলেন পূর্ণচন্দ্র দাস। পরিবারের অভিযোগ, প্রতিবেশী বাদল দাসের সঙ্গে রাস্তা সংক্রান্ত বিবাদ শুরু হয় তার। শুধুমাত্র বিজেপি করার অপরাধে গায়ের জোরে যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে দেয় তৃণমূল নেতা তথা প্রতিবেশী বাদল দাস। বিকেল নাগাদ বাড়ি সংলগ্ন পান বরোজ থেকে ওই বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পায় প্রতিবেশীরা। এরপর পুলিশকে খবর দেওয়া হলে রামনগর থানার পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

মৃত পূর্ণচন্দ্র দাসের স্ত্রী গীতাঞ্জলি দাস ও বোনের অভিযোগ, এটা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক ভাবে ষড়যন্ত্র করে খুন করা হয়েছে। গ্রামের বিজেপি কর্মী ছিলেন তিনি। তাই গায়ের জোরে তৃণমূল নেতা বাদল দাস যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে দেন। একটা সালিশি সভা ডেকে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছিলেন। তার আগে খুন করে আত্মহত্যা বলে চালাতে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দিয়েছে। কাঁথি সাংগঠনিক জেলার বিজেপি সম্পাদক নবীন প্রধান বলেন, রাজ্যের নতুন শিল্প তৈরি হয়েছে। খুন করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। পরে সেটা আত্মহত্যা বলে চালানো হচ্ছে।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কনিষ্ক পন্ডা বলেন, এই ঘটনায় কোনও রাজনৈতিক রঙ নেই। এটি সম্পূর্ণ পারিবারিক’ ঘটনা। বিজেপি রাজনৈতিক রং লাগানোর চেষ্টা করছে। এইভাবে প্রচারে আসার চেষ্টা করছে। পুলিশ তদন্ত করলে প্রকৃত সত্য প্রকাশ পাবে।

Related Articles

Back to top button
Close