fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পটাশপুরে নাসিং ছাএীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার , বাজেয়াপ্ত যুবতীর মোবাইল

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটাশপুর (পূর্ব মেদিনীপুর): পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পটাশপুরে নার্সিং ছাত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন তৈরি হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুলিশ বাড়ির মধ্যে থেকে উড়নার ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসে। প্রেম সম্পর্কে কারণে আত্মঘাতী আত্মঘাতী হয়েছে বলে স্থানীয় বাসিন্দা থেকে প্রতিবেশীদের দাবি। পুলিশ জানিয়েছে মৃত ছাএী যমুনা সাউ (১৯)। তার বাড়ি পটাশপুর থানার ছয়মারি গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে ছাএীর ব্যাঙ্গালোরে নার্সিং  পড়তে থাকতো। লক ডাউন পড়ে যাওয়ার কারনে যাওয়ার ১৮ মার্চ ব্যাঙ্গালোরে থেকে বাড়ি ফেরে যমুনা।ছাত্রীর সঙ্গে এক যুবকের প্রেম সম্পর্ক ছিল বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি।বৃহস্পতিবার দুপুরে পরিবারের সঙ্গে খাওয়া দাওয়া পর ফোনে কথা বলতে বলতে নিজের রুমে চলে যায় ওই ছাত্রী। সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন ছাত্রী সন্ধান না পেয়ে পরিবারের লোকেরা ডাকাডাকি করলে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। প্রতিবেশীরা ছুটে এসে দেখে বাড়ির সিলিং ফ্যানে উড়নার ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলছে ওই ছাত্রী।পুলিশ এসে বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ঝুলন্ত ছাএীর মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।তদন্তে কারনে যুবতীর মোবাইলটি বাজেয়াপ্ত করে নিয়ে যায় পুলিশ। শুক্রবার মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। যদিও পরিবারের পক্ষ থেকে এই ঘটনায় কোন লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি। প্রেম সম্পর্কের কারনে আত্মঘাতী বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান।

আরও পড়ুন: সামাজিক দূরত্ব মেনেই ২৫ শে বৈশাখ পালিত হল আসানসোলে

পটাশপুর থানার ওসি চন্দ্রকান্ত শাসমল বলেন মৃতদেহটি উদ্ধার করে হাসপাতালের ময়না তদন্তের পাঠানো হয়েছে যদিও পরিবারের পক্ষ থেকে কোন লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি ।একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। যুবতীর মোবাইল ফোনটি সূএ ধরে তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close