fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বারুইপুরের শ্বশুরবাড়ি থেকে স্কুল শিক্ষিকার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, গ্ৰেফতার স্বামী

বাবলু প্রামানিক, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: বেসরকারি এক স্কুল শিক্ষিকার শ্বশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার হল ঝুলন্ত দেহ। মৃতার নাম প্রিয়াঙ্কা চক্রবর্তী মিদ্যে(৩৩)। ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার রাতে বারুইপুরের ২ নম্বর ওয়ার্ড সুবুদ্ধিপুর বেলতলায়। অভিযোগ, তাঁকে বালিশ দিয়ে শ্বাসরোধ করে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। বারুইপুর থানার পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে বারুইপুর থানার পুলিশ স্বামী আশিস চক্রবর্তীকে গ্ৰেফতার করেছে। ধৃতকে শনিবার দুপুরে বারুইপুর আদালতে তোলা হয়।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে খবর, দেড় বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয়েছিল সুবুদ্ধিপুর বেলতলার বাসিন্দা প্রিয়াঙ্কা ও আশিসের। দুইজনের বাড়ি একই এলাকায়। আশিস বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতো। প্রিয়াঙ্কার ভাই অর্ণব মিদ্যের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই নানা কারনে অশান্তি হত। সাত-আট মাস আগে বোন জানতে পারে আশিসের পিছনে বাড়ি এক মেয়ের সাথে অবৈধ সম্পর্ক আছে। এর প্রতিবাদ করে বোন। তারপর থেকেই বোনের উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার বেড়ে গিয়েছিল। এই অত্যাচারের জন্য বোন প্রায়ই বাপের বাড়ি চলে আসতো। আবার আশিস বুঝিয়ে নিয়ে যেতো। এমনকি দুই বাড়ির পরিবার এই অশান্তি মিটিয়েছিল। কিন্তু, কয়েক মাস বাদেই আবার শুরু হয়ে যায় অত্যাচার। আশিস ও তাঁর মা দুইজন মিলেই অত্যাচার করতো।

তাঁর আরও অভিযোগ, বোনকে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। রাতে খবর পেয়ে শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে দেখি বাইরে থেকে দরজা বন্ধ। পিছনের দরজা দিয়ে ভিতরে ঢুকে বোনের ঝুলন্ত দেহ দেখি। আমরা আশিস ও তার পরিবারের উপযুক্ত শাস্তি চাই। এদিকে, পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। বাকি অভিযুক্তদেরও ধরা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close