fbpx
কলকাতাহেডলাইন

সংক্রমণ এড়াতে মেছুয়ায় ভিন রাজ্যের চালক ও খালাসির সাস্থ্য পরীক্ষা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পুরসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংক্রমণ এড়াতে রবিবার থেকেই মেছুয়া ফলপট্টিতে ভিন রাজ্য থেকে আগত চালক ও খালাসিদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা চালু হয়ে গেল। সেইসঙ্গে ট্রাক যেগুলি মাল বহন করে নিয়ে এসছে সেগুলিকেও জীবাণুমুক্ত করা হয় । মেছুয়া ফলপট্টিতে আসা ফল বোঝাই ছোট কিংবা বড় লরি জীবাণুমুক্ত করেই বাজারে ঢোকানো হবে। আর সে জন্য মেছুয়ায় তৈরি করা হচ্ছে জীবাণুমুক্ত করার সুড়ঙ্গ। যার ভিতর দিয়ে যাওয়ার সময়ে আস্ত একটি পণ্যবাহী গাড়ি জীবাণুমুক্ত হতে পারবে। একইসঙ্গে ট্রাকের চালক এবং খালাসিকে পৃথক ভাবে জীবাণুমুক্ত করার কাজও ইতিমধ্যে মেছুয়ায় শুরু হয়েছে।

 

 

 

বাইরে থেকে আসা পণ্যবাহী লরিচালক কিংবা খালাসির থেকে যাতে করোনা সংক্রমণ না ছড়িয়ে পড়তে পারে, তার জন্যই এ ধরনের ব্যবস্থা। উল্লেখ্য বেশ কয়েকদিন আগেই করণা ফলের এই পাইকারি বাজার সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পৌরসভা কিন্তু স্থানীয় ব্যবসায়ীদের আপত্তিতে তা সম্ভব হয়নি। ট্রাক জীবাণুমুক্ত করার জন্য যে সুরঙ্গ তৈরি করা হয়েছে তা দেখভাল করবে ব্যবসায়ী সংগঠনগুলি। মূলত ফোয়ারার মাধ্যমে এক ধরনের রাসায়নিক তিন দিক থেকে ওই সব গাড়ি জীবাণুমুক্ত করার কাজ করবে। দিনে গড়ে মেছুয়ায় ২০০টি ছোটবড় গাড়ি আসে। বাইরের রাজ্য থেকে আসা গাড়ির সংখ্যা প্রায় একশো। তবে পূর্বের মত  অনেক গাড়ি একসঙ্গে  মেছুয়া  ফলপট্টি তে প্রবেশ করতে পারবে না।

 

এক এক করে ট্রাক জীবাণুমুক্ত হয়ে  বাজারে প্রবেশ করে তিন থেকে চার ঘন্টার মধ্যে গাড়ি খালি করে  বেরিয়ে যেতে হবে। তারপরে অন্য গাড়ি প্রবেশ করতে পারবে।এছাড়াও কেনাবেচার সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে কিনা সেটিও লক্ষ্য রাখবে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গুলি।

 

 

সূত্রের খবর, কলকাতায় কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা ৩৪০ কমে হয়েছে ২৬৯। শনিবার পুরসভায় এক বৈঠকে এই নয়া কন্টেনমেন্ট জোনের তালিকা তৈরি হয়েছে। তালিকায় শহরের গ্রিন জোন হিসেবে ৯৮টি এবং অরেঞ্জ জোন হিসেবে ৬৩টি জায়গাকে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে পুরসভা সূত্রে খবর। এদিকে চেতলা, বেহালা, খিদিরপুর, ভবানীপুরের মতো কিছু জায়গায় নতুন করে সংক্রমণ দেখা দিয়েছে বলে পুরসভা সূত্রে খবর।

Related Articles

Back to top button
Close