fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

প্রত্যেক পরিবার থেকে দুজনের বেশি জলাশয় যাওয়া যাবে না, ছট পুজো নিয়ে কড়া নির্দেশিকা হাইকোর্টের

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ছট পুজো নিয়ে কড়া নির্দেশিকা জারি করল কলকাতা হাইকোর্ট। হাইকোর্টের দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশ, প্রত্যেক পরিবার থেকে দুজনের বেশি জলাশয় যাওয়া যাবে না। ঢাক বা ছোট বাদ্যযন্ত্র ছাড়া বিদ্যুৎ চালিত ডিজে বাজনা বোঝানো যাবেনা। করা যাবে না শোভাযাত্রাও। খোলা যানবাহনে চেপে জলাশয়ে আসতে হবে। পুজোয় যদিও অংশগ্রহণকারীরা সবাই জলাশয় যেতে পারবেন না। এ নিয়ে রাজ্য প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী প্রতিনিয়ত প্রচার চালাবে প্রতিনিধিরা। এছাড়াও এবার রবীন্দ্র সরোবর ও সুভাষ সরোবরে নিষিদ্ধ থাকবে ছট পুজো। কেএমডিএ-এর আবেদন অনুযায়ী যে মামলা বিচারাধীন রয়েছে সুপ্রিম কোর্টে, তার প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট কোনও নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত পরিবেশ আদালতের নির্দেশ কড়া ভাবে মানতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে হাইকোর্ট।
এদিন ছট পুজো নিয়ে ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্যের কাছে জানতে চায়, ‘কলকাতায় ৩৮০টি ঘাট আছে। যেখানে ছট পুজোয় মানুষ ভিড় করেন। কলকাতা ছাড়াও শিলিগুড়ি, দুর্গাপুরেও ছটপুজো হয়। কী ব্যবস্থা নিয়েছেন? ছটপুজো উপলক্ষে যে শোভাযাত্রা বের হয়, সেখানে ভয়ঙ্করভাবে ডিজে বাজে, বাজি ফাটে। এগুলোর বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে রাজ্যের পক্ষ থেকে?’
কিন্তু এর কোনও সঠিক জবাব দিতে পারেননি রাজ্যের কৌঁসুলি। তিনি জানান, ছটপুজোর দিন কোন পরিবার থেকে কজন লোক বেরোবে সেটা ঠিক করে দেওয়া রাজ্যের পক্ষে অসুবিধার। এর পরিপ্রেক্ষিতেই ছট পুজো জলাশয়ে যাওয়া নিয়ে নির্দিষ্ট সংখ্যা বেঁধে দিয়েছে হাইকোর্ট।
এছাড়াও উৎসবের দিন গুলিতে রেল নিয়ন্ত্রণ নিয়ে রেল কর্তৃপক্ষ ও রাজ্যের সিদ্ধান্তকেই মান্যতা দিল কলকাতা হাইকোর্ট। রাজ্য রেলের সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী পদ্ধক্ষেপ ঠিক করবে। তবে ভিড় সামলাতে কোন অসুবিধা হলে রাজ্য আইন মোতাবেক পদক্ষেপ করবে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।
মামলাকারীর আইনজীবী সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায় জানান, কালীপূজার দিন ট্রেন সম্পূর্ন বন্ধ রাখলে এবং জগদ্ধাত্রী পূজায় চন্দননগরগামী ট্রেন নিয়ন্ত্রণ করলে ভালো হয় বলে আদালতের প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে বলে জানান তিনি।

Related Articles

Back to top button
Close