fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ক্ষতি পুষিয়ে লাভের আশা নিয়ে শুরু আন্তর্জাতিক বাণিজ্য, প্রথম দিনে ৪০টি লরি পৌঁছালো বাংলাদেশ, ভারতে এল ৬ টি

বালুরঘাট: লকডাউনের প্রায় ৮০ দিন পর দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় খুলে দেওয়া হলো ভারত-বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক বহির্বাণিজ্য। সোমবার থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশের সাথে আমদানি-রফতানি শুরু করল ভারত সরকার। তবে এক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণ রুখতে বেশকিছু স্বাস্থ্য বিধি মানতে হচ্ছে সংশ্লিষ্ট কর্মীদের।

এদিন হিলি সীমান্ত দিয়ে প্রায় ৪০ টি ট্রাক কাঁচামাল ও অনান্য পন্য সামগ্রী নিয়ে বাংলাদেশে যায়। একইভাবে ওপার থেকেও ছয়টি লরি আসে ভারতে। পণ্যবাহী ট্রাক সহ চালক ও খালাসিদের সম্পূর্ণ স্যানিটাইজেশন করে ওপারে পাঠানো হচ্ছে। ঠিক একইভাবে ওপার থেকে আগত আমদানিকৃত সামগ্রী সহ ট্রাক জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে সীমান্তে। এপারে আসার পর চালককে গাড়িতে রেখেই পণ্য সামগ্রী আনলোড করে ওপরে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে বলে জানানো হয়েছে ব্যবসায়ীদের তরফে।

লকডাউনের কারণে দীর্ঘদিন বহিবাণিজ্য বন্ধ ছিল। যা নিয়ে চরম ক্ষতির মুখে পড়ে দুই দেশের আমদানি-রফতানিকারকেরা বাণিজ্য শুরু করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। যদিও কেন্দ্র অনেক আগেই এব্যাপারে সবুজ সংকেত দিলেও রাজ্যের তরফে চতুর্থ লকডাউনের শেষ অবধি এই বিধি নিষেধাজ্ঞা বজায় থাকায় তা এত দিন বন্ধই ছিল। বানিজ্য শুরুর প্রথম দিনেই দুদেশের তরফে যাবতীয় স্যানিটাইজিড করার আয়োজন করা হয়েছিল সীমান্তে।

হিলি এক্সপোর্ট এন্ড ক্লিয়ারিং এজেন্টস ( হেএক্কা) অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অশোক আগরওয়াল ও সম্পাদক সনজিত মজুমদার জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমন রুখতে বাংলাদেশ সরকারের তরফে ভারতীয় ট্রাক চালক ও খালাসিদের জন্য কোনও ব্যবস্থ্যা করা না হলেও ওই সব গাড়ির চালক ও খালাসিদের ভারতে ফিরে আসার পর তাদের সম্পূর্ণ স্যানিটাইজেশন করা হবে। যে সমস্ত চালক ও খালাসি ট্রাক নিয়ে ওপারে যাচ্ছেন তাদের স্যানিটাইজেশনের পাশাপাশি গ্লাভস ও মাস্কের সুরক্ষা ব্যবস্থা দিয়েই ওপারে পাঠানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, লকডাউনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছিলেন ভারতীয় ট্রাক চালক ও খালাসীরা। ফের আমদানি-রফতানি চালু হওয়ায় খুশির হাওয়া হিলি সীমান্তে।

Related Articles

Back to top button
Close