fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

হিঙ্গলগঞ্জ বিজেপি কর্মীর মৃত্যুকাণ্ডে নয়া মোড়, খাস জমি দখলের জেরেই খুন, দাবি পরিবারের

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: ১৩ সেপ্টেম্বর দলীয় পতাকা টাঙানোকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক সংঘর্ষ বাঁধে হিঙ্গলগঞ্জের মঙ্গলচণ্ডী গ্রামে। এতে করে তৃণমূল ও বিজেপি উভয়পক্ষের ৫ জন জখম হন। যদিও এদের মধ্যে বিজেপি কর্মী বছর ৫২-এর রবীন্দ্রনাথ মন্ডলকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে বসিরহাট জেলা হসপিটাল তারপর এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর ১৯ অক্টোবর রাতে মৃত্যু হয়।

এদিকে এই মৃতদেহ নিয়ে বসিরহাট মহকুমা জুড়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ অবরোধ করে বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা। বুধবার বিকেলে সাংসদ অর্জুন সিং, সৌমিত্র খাঁ, সুভাষ সরকার ও  রাজ্য বিজেপির নেতৃত্বরা, মৃত বিজেপি কর্মীর বাড়িতে যান এবং সেখানে তাঁর পরিবারের সঙ্গে দীর্ঘ সময় আলোচনা হয়। তারপর এই পরিবারে ৫ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্যের আশ্বাস দেয় বিজেপি। তারপর সেখানেই মৃত বিজেপি স্ত্রী সান্তা মন্ডল ও ছেলে সৌরভ মন্ডল সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে  বলেন,  এই খুনের পেছনে কয়েক কাঠা খাস জমি দখলদারীর কারণ রয়েছে। তিনি আরও বলেন, এই জমির লড়াই গত তিন বছর ধরে চলছে।

                   আরও পড়ুন: বিনা অনুমতিতে মহারাষ্ট্র প্রবেশ করতে পারবে না সিবিআই!

সূত্রের খবর, ওই খাসজমি মৃত বিজেপি নেতা রবীন্দ্রনাথ মন্ডলের নামে জমির পাট্টা কেরে নেওয়ার অভিযোগ উঠছে। ওই খাস জমি নিয়ে গন্ডগোল প্রায়ই হত। তার পরেই এই সংঘর্ষ বাঁধে দলীয় পতাকা টাঙানো শুধু উদ্দেশ্য। এর পিছনে রয়েছে জমি দখলের লড়াই। মৃত বিজেপি কর্মী রবীন্দ্রনাথ মন্ডলের পরিবার, রাজ‍্য বিজেপি নেতৃত্বের কাছে আবেদন জানিয়েছে মৃত বিজেপি কর্মীর ছেলে সৌরভ যাতে স্থায়ীভাবে একটি কাজ পায়। এবং দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে মৃতর পরিবার।

এমনকি বিজেপির সাংসদ সুভাষ সরকার জমি বিবাদের জেরে মৃত্যু হয়েছে বিজেপি কর্মীর সেকথা স্বীকার করে নেন। মৃত পরিবারকে রাজ্য বিজেপি থেকে কয়েক লক্ষ টাকার অনুদান দেওয়ার ঘোষণা করেছে।

Related Articles

Back to top button
Close