fbpx
কলকাতাহেডলাইন

গড়িয়া শ্মশান ইস্যুতে ধনকড়কে পালটা জবাব স্বরাষ্ট্রদফতরের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: গড়িয়া শ্মশানের নিয়ে ফের টুইটে মুখ্যমন্ত্রীকে খোঁচা রাজ্যপালের। লোহার হুক দিয়ে মৃতদেহগুলি টেনে নিয়ে যাওয়াতে নির্মমভাবে আমাদের ঐতিহ্য ধ্বংস হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানালেন তিনি। যদিও রাজ্যপালের টুইটের পালটা জবাব দিয়েছে স্বরাষ্ট্রদফতর।

গড়িয়া শ্মশানকাণ্ড নিয়ে রাজ্যপালকে একযোগে আক্রমণ শানালেন তৃণমূল নেতারা। জগদীপ ধনখড়কে বিঁধে একের পর এক টুইট পার্থ চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, দীনেশ ত্রিবেদীদের। কারও অভিযোগ, ভুয়ো খবর রটাচ্ছেন রাজ্যপাল। কেউ বললেন, ‘চেয়ারটার মর্যাদা রাখুন।’ রাজ্যপালকে নিশানা করে একের পর এক তৃণমূল-টুইট বাণের পরেও এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পাল্টা কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি ধনকরের তরফে।

কলকাতার প্রশাসক তথা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে তোপ দাগেন রাজ্যপাল। দাবি, ফিরহাদ হাকিম তাঁকে ভুলে গিয়েছেন। পুর কমিশনারের মাধ্যমে ফিরহাদ হাকিমকে দেখা করার অনুরোধও জানিয়েছেন ধনকর। একইভাবে  ধনকরকে বিঁধে তৃণমূল নেতা তথা কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম টুইটে লেখেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ সরকার জনগণের জন্য নিয়মিত কাজ করে চলেছে। অন্যরা কেবল ভুয়া খবর ছড়াতে আগ্রহী।’

আরও পড়ুন: একসঙ্গে ৬ জন করোনা আক্রান্ত মুচিবাজার বস্তিতে!

গড়িয়া শ্মশানের একটি ভিডিও সম্প্রতি সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। একটি ভিডিওয় দেখা গিয়েছে, একের পর এক মৃতদেহ টেনে, হিঁচড়ে আঁকশি দিয়ে তোলা হচ্ছে গাড়িতে। এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্যজুড়ে। বিজেপির একাংশের অভিযোগ করোনা আক্রান্তদের দেহ লুকিয়ে পোড়ানোর ছক কষেছিল প্রশাসন।

Related Articles

Back to top button
Close