fbpx
কলকাতাদেশহেডলাইন

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লির বাড়িতে দুষ্কৃতীদের তাণ্ডব

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লিতে আক্রান্ত তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি। একই ভাবে আক্রান্ত বঙ্গ ভবনও। তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের  কেন্দ্রে প্রচারসভায় যাওয়ার পথে হামলার মুখে পড়েছিল বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার কনভয়। রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় গাড়ি আটকে ভাঙচুর, ইট ছোঁড়াছুঁড়ি চলে সরিষা, দেবীপুর, শিরাকোল এলাকায়। আক্রান্ত হয়েছেন তাঁর সঙ্গে থাকা কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়ের মতো অন্যান্য বিজেপি নেতাও। বৃহস্পতিবার এ নিয়ে দিনভর উত্তপ্ত ছিল রাজ্য রাজনীতি। আর রাতে এর প্রভাব পড়ল দিল্লিতে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লির বাড়িতে হামলা চালাল একদল দুষ্কৃতী। হামলা চলে বঙ্গভবনেও।

দিল্লির ১৮৩, সাউথ অ্যাভিনিউতে বাড়ি সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দিল্লি গেলে তিনি সাংসদ কোটার ওই বাড়িতেই থাকেন। রাজধানীতে কোনও কাজে গেলে এই বাড়িতে ওঠেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও । বৃহস্পতিবার রাতের দিকে এখানেই চলল দুষ্কৃতী হামলা। বাড়ির দেওয়াল এবং অভিষেকের নামের ফলকে কালি লেপে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। ছোঁড়া হয় ইটও। এই বাড়ি অদূরে সাউথ অ্যাভিনিউ থানা। রাত পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, তৃণমূলের তরফে কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি থানায়। তবে হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল ঘুরে দেখে বলে খবর।

আরও পড়ুন: ভারত বনধের পর এবার রেল রোকো! নয়া হুঁশিয়ারি কৃষকদের

অন্যদিকে, চাণক্যপুরীর বঙ্গভবনেও রাতে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ। রাত সাড়ে দশটা নাগাদ একদল যুবক সেখানে পৌঁছে কালি ছড়াতে থাকে বলে অভিযোগ। সূত্রের খবর, ডায়মন্ড হারবারের পথে জেপি নাড্ডার  কনভয়ে হামলার প্রতিবাদে তাঁদের এই বিক্ষোভ বলে জানিয়েছে হামলাকারীরা। তবে দুটি ঘটনার কোনওটিতেই থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি বলেই খবর। দুটি হামলার ঘটনা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ। তাঁর মন্তব্য, ”হামলা চালানো বিজেপিরই কাজের নমুনা। যেখানেই পিছু হঠে, সেখানেই এভাবে হামলা চালায়। তৃণমূলের এ ধরনের হামলা করার কোনও প্রয়োজন হয় না।”

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close