fbpx
কলকাতাহেডলাইন

করোনা আক্রান্ত নবান্নের হাউজকিপার, নতুন আক্রান্ত ৩৯১, সুস্থ ৫০৫, মৃত ১১

নিজস্ব প্রতিনিধি কলকাতা: সোমবার জীবাণুনাশ করার পরেও ফের নবান্নে এক ব্যক্তির করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ল। বারবার রাজ্যের শীর্ষ প্রশাসনিক দফতর নবান্নে করোনার থাবায় চিন্তিত প্রশাসনিক আধিকারিকরাও। অন্যদিকে, ফের ২৪ ঘন্টায় ৩৯১ জন করোনা পজিটিভ হলেও সুস্থ হয়েছেন ৫০৫ জন। এদিনও ১১ জন মৃত্যু হওয়ায় মৃত্যুর গড় না পাল্টালেও সুস্থতার ট্রেন্ড আশা জোগাচ্ছে স্বাস্থ্য আধিকারিকদের। এদিকে নবান্ন সূত্রে খবর, একটি বেসরকারি সংস্থার ওই কর্মী হাউসকিপিং-এর কাজ করেন। এর আগে নবান্নে গোটা পাঁচেক গাড়ির চালক করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তাদের সংস্পর্শে আসায় ওই কর্মীকে রাজারহাটের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই পরীক্ষায় তাঁর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ফের এক ব্যক্তির শরীরে করোনা জীবাণু মেলায় চিন্তায় প্রশাসন।

অন্যদিকে, এদিন ফের ২৪ ঘন্টায় ৩৯১ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১২৩০০ জনে।  আরও ১১ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৫০৬ জনের। আরও ৫০৫ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ৬৫৩৩ জন। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে হাওড়ায় একসঙ্গে ২৬৩ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ৪৮ জন এবং কলকাতায় ৫০ জন সুস্থ হওয়ায় সুস্থ হওয়ার হার ফের বেড়ে দাঁড়াল ৫৩.১১ শতাংশে।

এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৫২৬১ জন। বুধবার স্বাস্থ্য দফতর থেকে প্রকাশিত বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৪৫ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৩৬০৯৭৬ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৯২২২ জনের। রাজ্যের ৭৭ টি করোনা হাসপাতাল, ২৪ টি সরকারি এবং ৫৩ টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০১০৫ টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯৫ টি। তার ২২.২৫ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

আরও পড়ুন: কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট এর নাম পরিবর্তন করা নিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের কলকাতা হাইকোর্টে

সরকারি ৫৮২ টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ১১৪৩৪ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৮৪৯১০ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১৪৮২০৯ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১৩৩৭২৮ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ৯৩৬০ টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ৮১৬৫৪ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ১৬৬৪৯৪ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তিন রকম কোয়ারান্টাইন সেন্টার থেকেই দ্রুত বেশি সংখ্যক মানুষ ছাড় পাওয়ায় আশার আলো দেখছেন চিকিৎসকরা।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন ১৪৩ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ৪০৮৯ জনের। এদিন কলকাতায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতেই মোট মৃত্যু ৩০৮ জনের। এছাড়া
হাওড়া, হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুর এবং নদিয়াতে ১ জন করে মোট আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। উত্তর ২৪ পরগনাতে ৪৬ জন এবং হাওড়াতে ৭২ জনের সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিন উত্তরবঙ্গের কালিম্পং, উত্তর দিনাজপুর ও দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দক্ষিণবঙ্গের পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রাম ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের সব ক’টি জেলাতেই।

মোট আক্রান্ত ১২৩০০ জন
মোট মৃত ৫০৬ জন
মোর সুস্থ ৬৫৩৩ জন

Related Articles

Back to top button
Close