পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কাঁথিতে গৃহবধুর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার, পলাতক শ্বশুরবাড়ি সদস্যরা

মিলন পণ্ডা, পূর্ব মেদিনীপুর: নববিবাহিত এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ালো। বৃহস্পতিবার সকালে কাঁথি থানার রসুলপুর গ্রামে শুভদীপা ডিঙ্গাল (১৯) নামে এক গৃহবধুর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয় । শ্বশুরবাড়ির লোকেরা কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপরেই, মৃতদেহটি হাসপাতালের ফেলে পালিয়ে যায় মৃতার শ্বশুরবাড়ি সদস্যরা।

ঘটনার খবর জানতে পেরে বাপের বাড়ির লোকেরা কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে হাজির হয়। মৃতার বাবা রামপদ মাল কাঁথি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। কাঁথি থানা পুলিশ মৃতদেহটিকে কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। হাসপাতালের ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে গৃহবধূর ময়নাতদন্ত হয়।

জানা গেছে, গত সাত মাস আগে জুনপুট থানার মাজিলাপুট গ্রামের শুভদীপা সঙ্গে কাঁথি থানার রসুলপুর গ্রামের উওমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তার শ্বশুর বাড়ির সদস্যরা পনের দাবিতে প্রায়ই মারধর করতো বলে অভিযোগ।

মৃত শুভ্রদীপার কাকা ধনঞ্জয় মাল বলেন, ‘এদিন জামাই উত্তম ফোন করে জানায়- আপনাদের মেয়ে অসুস্থ এবং হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। কিন্তু আমরা হাসপাতালে গিয়ে দেখি, জামাই সহ বাড়ির লোকজনরা সকলে মৃত শুভ্রদীপাকে হাসপাতালে ফেলে পালিয়ে গিয়েছে। সবকিছু দেখে এটা পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে,ভাইঝিকে শ্বাসরোধ করেই খুন করা হয়েছে।’

কাঁথি থানার পুলিশ পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ময়না তদন্তে রির্পোট এলে পরিস্কার হবে খুন, না আত্মহত্যা।

Related Articles

Back to top button
Close