fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সংস্কারের অভাবে আগাছায় পরিপূর্ণ সরকারি কর্মীদের আবাসন… বাড়ছে সাপ, পোকামাকড়ের উপদ্রব

শান্তনু চট্টোপাধ্যায়, রায়গঞ্জ: দীর্ঘদিন ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকায় আগাছা আর জঙ্গলে ভরে গিয়েছে রায়গঞ্জের উদয়পুরে অবস্থিত প্রাণী সম্পদ বিকাশ বিভাগের কর্মীদের আবাসনগুলিতে। বাড়ছে সাপ, পোকামাকড়ের উপদ্রব। সমস্যায় পড়ছেন এলাকার বাসিন্দারাও। অবিলম্বে আবাসনগুলি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন সকলে।

উল্লেখ্য, রায়গঞ্জের উদয়পুরে রয়েছে ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ বিভাগের দফতর৷ এই দফতরের সঙ্গেই রয়েছে কর্মীদের আবাসনও। কিন্তু সংস্কারের অভাবে দফতরের আবাসনগুলি আগাছায় ভরে গিয়েছে। সাপ, পোকামাকড়ের উপদ্রবে দফতরের কর্মীরা আবাসন ছেড়ে স্থানীয় এলাকায় থাকতে শুরু করেছেন। ফলে দীর্ঘদিন ধরেই আসনগুলি পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকায় আগাছা ও জঙ্গলে ভরে গিয়েছে। আর বর্ষাকালে সেখানে দেখা দিয়েছে বিষধর সাপের উপদ্রব। আতঙ্কে রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও।
স্থানীয়দের বক্তব্য, ‘ওই আবাসনগুলিতে এক সময় কর্মীরা থাকতেন। কিন্তু সাপের উপদ্রবের কারণে এখন সেখানে কোনও কর্মী থাকেন না। বর্তমানে আবাসনের চারদিকে জঙ্গল আর গাছগাছালিতে ভরে গিয়েছে৷ প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে জরাজীর্ণ অবস্থা আবাসনগুলির ঘর। খসে পড়ছে দেওয়ালের পলেস্তরা” ৷

আরও পড়ুন:‘প্রতিবেশী দেশগুলির সঙ্গে ভারতের সম্পর্ককে ধ্বংস করে দিয়েছে মোদি সরকার’, তোপ রাহুলের

অন্যদিকে কমলাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান প্রশান্ত দাস বলেন, সরকারি বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা যদি এখানে নিয়মিত হয় তাহলে বিল্ডিংগুলির ব্যবহার সম্ভব। পাশাপাশি যারা বাইরে থেকে বিভিন্ন কাজে জেলায় আসছেন তাঁদেরও থাকার ব্যবস্থা এখানে করা যেতে পারে।

এবিষয়ে দফতরের আধিকারিকের সঙ্গে শীঘ্রই কথা বলব। অন্যদিকে প্রাণী সম্পদ বিকাশ বিভাগের অধিকর্তা দিব্যেন্দু বিকাশ কর্মকার জানিয়েছেন, প্রয়োজনের তুলনায় বর্তমানে দফতরের কর্মী সংখ্যা কম রয়েছে। সেকারণেই আবাসনগুলি পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। তবে আবাসনগুলির সংস্কারের ব্যাপারে পূর্ত দফতরের কাছে তারা ইতিমধ্যেই প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close