fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

করোনার উৎপত্তি কিভাবে! নিরপেক্ষে তদন্তের দাবিতে ভারত-সহ বিশ্বের ৬২টি দেশ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস! এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বের কাছে একটি আতঙ্কের নাম। একদিকে যেমন আক্রান্তদের সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার খবর আসছে তার ঠিক পরক্ষণেই আসছে মৃত্যুর খবর। তবে করোনা নামক ভাইরাসের ভয়ে কাঁপছে সকলেই। অন্যদিকে ‘হু’ জানিয়ে দিয়েছে সারাজীবন হয়তো এই মারণ ভাইরাসকে নিয়েই পথ চলতে হবে।
কিন্তু এই করোনা ভাইরাস যা বিশ্ব ব্রহ্মাণ্ডকে কাঁপিয়ে দিচ্ছে, সেটি কোথা থেকে এল তা জানতে উদগ্রীব সব মহলই।

এই নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের যৌথ উদ্যোগ নিল অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন। আর এই উদ্যোগকে সমর্থন জানিয়েছে ভারত-সহ বিশ্বের ৬২টি দেশ। এই তদন্তের খসড়া প্রস্তাবে ভারত ছাড়াও সমর্থন জানিয়েছে জাপান, ব্রিটেন, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, ব্রাজিল এবং কানাডার মতো দেশ।

পাশাপাশি, কোভিড-১৯ নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র প্রতিক্রিয়া নিয়েও নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানানো হয়েছে।

ইতিমধ্যেই এই খসড়া প্রস্তাবও তৈরি করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাসের সঙ্কট নিয়ে নিরপেক্ষ, স্বাধীন এবং সবিস্তার তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। প্রয়োজনে সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে হু-কে দিশা ঠিক করার আহ্বান জানানো হয়েছে। এমনকী, এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে কতটা নিরেপক্ষ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল তা নিয়েও তদন্তের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে ওই খসড়ায়।

প্রসঙ্গত, ৭৩তম ওয়ার্ল্ড হেল্থ অ্যাসেম্বলি (ডব্লিউএইচএ)-র বৈঠক শুরু হচ্ছে আজ থেকে।
এই সব বিষয় এই আলোচনায় প্রাধান্য পাবে। বৈঠকে থাকছে ভারতও। প্রথম থেকেই অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলি এ বিষয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করে আসছিল। এ নিয়ে বিভিন্ন দেশের প্রতিক্রিয়া এবং সমর্থন পাওয়ার কাজে নেমেছিল তারা। অবশেষে এক জোটে এই তদন্তে যোগ দিচ্ছে ভারত-সহ ৬২টি দেশ।

প্রসঙ্গত, করোনার আঁতুর ঘর চিনের উহান। তারপর বিভিন্নভাবে করোনার উৎপত্তি নিয়ে অনেক জলঘোলা হয়েছে। অনেক সময় এই ভাইরাস ম্যান মেড বলে প্রসঙ্গ উত্থাপন হয়েছে। কিন্তু কোনও সঠিক দিশা পাওয়া যায়নি। এবার সকল দেশের সঙ্গে সত্যতা জানতে কোমর বেঁধে নেমেছে ভারত। পাশাপাশি আমেরিকাও বার বারই এই সংক্রমণের জন্য চিনকে দায়ী করেছে।
করোনা ভাইরাস নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তে হু-কে সামিল করার বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অস্ট্রেলিয়ার বিদেশমন্ত্রী মেরিস পেইন। তিনি বলেন, ‘হু-কে করোনার ভাইরাসের তদন্ত করতে দেওয়া অনেকটাই ‘শিকারিকে শিকার বন্ধ করে বনাঞ্চলের দেখাশোনা করতে দেওয়ার’ মতোই বিষয়।
এখন সত্য জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা সকলেরই।

Related Articles

Back to top button
Close