fbpx
লাইফস্টাইলহেডলাইন

শীতে ত্বক ভালো রাখব কিভাবে

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্কঃ শীত গুটি গুটি পায়ে এসে কবে ধরা দেবে, তার অপেক্ষায় আমজনতা। তবে শীতের আগমন বার্তাতেই হাত পায়ে টানটান, ঠোঁট ফাটছে। সাধারণ মশ্চারাইজারগুলি এই সময়ে কোন কাজে আসে না। তবে এখন কি করব? শীত সবার আগে টের পায় মানুষের ত্বক। হিমেল মৌসুমে ত্বকের রুক্ষতা কয়েক গুণ বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে যোগ হয় ত্বক ফাটার সমস্যা, নানা চর্মরোগ। এই সমস্যা সবচেয়ে বেশি দেখা যায় পা ও ঠোঁটে। তাই পুরোদমে শীত শুরুর আগেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ত্বকের বিশেষ যত্ন নিতে হবে।

 

ময়েশ্চারাইজারের ব্যবহার

শীতের শুরুতেই ত্বকে এমন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত, যাতে তেলের পরিমাণ বেশি। সেই সঙ্গে রাতে যে নাইট ক্রিম ব্যবহার করা হয়, তা-ও যেন ওই রকম হয়। কারণ, এসব ক্রিম ত্বক আর্দ্র রাখতে বেশি সহায়ক।

 

সানস্ক্রিন ব্যবহার জরুরি

অনেকেই মনে করেন শীতকালে সানস্ক্রিন ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। কিন্তু শীত হোক কিংবা গ্রীষ্ম মৌসুম—সরাসরি রোদ সব সময় ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। তাই শীতের মৌসুমেও বাইরে বের হওয়ার অন্তত ৩০ মিনিট আগে মুখে, হাত ও পায়ে সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিন।

হাতের যত্ন নিন

মুখের ত্বকের যত্ন নিয়ে মানুষ যতটা সচেতন, অনেক সময় হাতের যত্নের বিষয়ে ততটা দেখা যায় না। যদিও হাতের ত্বক শীতকালে অনেক বেশি রুক্ষ হয়ে পড়ে। বিশেষ করে যাঁদের বারবার হাত ধুতে হয়, তাঁরা এই সমস্যায় বেশি ভোগেন। এ সময় হাতে ভালো মানের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত।

সুন্দর পায়ের যত্ন

শীতের মৌসুমে পায়ে মোজা পরে থাকার বিকল্প নেই। এতে পায়ের ত্বক ঝকঝকে, মসৃণ থাকে। এ ছাড়া শীতের সময় পেট্রোলিয়াম জেলি কিংবা গ্লিসারিন দিয়ে পায়ের ত্বকে ম্যাসাজ করতে পারেন। সপ্তাহে একবার এক্সফোলিয়েট করে পায়ের ত্বকের মৃত কোষ তুলে নিন। প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে সামান্য যত্ন শীত মৌসুমে আপনার পায়ে ত্বক সুন্দর রাখবে।

জল খান

শীত মৌসুমে অনেকে তুলনামূলক কম জল খেয়ে থাকেন। এটা ত্বকের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক। ত্বকের জন্য তো বটেই, শুষ্ক মৌসুমে সুস্থ থাকার জন্য জল খাওয়া প্রয়োজন।

 

স্নান করুন নিয়ম মেনে

অতিরিক্ত গরম জলে স্নান ত্বকে ক্ষতি ডেকে আনতে পারে। ত্বক রুক্ষ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। হালকা গরম জলে স্নান করাই ভালো। ভালো করে তেল মেখে স্নান করা ভালো।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close