fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

“মাস্ক”, “লকডাউন”-এর বিরুদ্ধে লন্ডনের রাস্তায় মানুষ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনাকে রুখতে সবথেকে বড় অস্ত্র মাস্ক। আর এই মাস্ক পরার বিরুদ্ধে লন্ডনের রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখালো কিছু মানুষ। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে দেশে ‘মাস্ক’ পরা বাধ্যতামূলক করেছে বরিস জনসনের সরকার। আর  সরকারের এই নির্দেশের বিরুদ্ধে উত্তাল হয়ে ওঠে লন্ডন।

গত ৬ জুলাই থেকে লন্ডনে শুরু হয়েছে মাস্ক বিরোধী আন্দোলন। ব্রিটেনের ব্যবসায়ী সাইমন ডোলানের উদ্যোগেই এই অভিনব আন্দোলন শুরু হয়েছে। বেসরকারি বিমান শিল্পের সঙ্গে জড়িত সাইমন ডোলান। বরিস জনসন সরকারের লকডাউনের বিরুদ্ধে আদালতেরও দ্বারস্থ হয়েছেন সাইমন ডোলান। যদিও সেই মামলায় হেরে যান সাইমন ডোলান।

[আরও পড়ুন- পাকিস্তানের মাটিতে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল বুদ্ধমূর্তি]

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের তাণ্ডবে বিশ্বজুড়ে এক ত্রাসের সৃষ্টি হয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির পাশাপাশি করোনা ছোবলে জেরবার ব্রিটেন। খোদ ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনাকে জয় করে ফিরে এসেছেন। শুধু ব্রিটেন নয়, করোনার ছোবল খেয়েছে বিশ্বের তাবড় তাবড় নেতারা। এরমধ্যেই করোনা সংক্রমণ রুখতে মাস্ক বাধ্যতামূলক করেছে ব্রিটেন।কিন্তু এরই বিরুদ্ধে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে কিছু মানুষ। এদের হাতে ছিল প্ল্যাকার্ড। সেই প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল বিভিন্ন মাস্ক বিরোধী কথা।

বিক্ষোভকারীদের মতে সবসময় মাস্ক পরার কারণে আরও বেশি করে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়বে। এদিন বিক্ষোভ চলাকালীন নিরাপত্তা রক্ষীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন বিক্ষোভকারীরা। এই বিষয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জানিয়েছেন যে, ‘আগামী বড়দিনের আগেই ব্রিটেনকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্য সরকারের এই প্রচেষ্টা’।

Related Articles

Back to top button
Close