fbpx
হেডলাইন

টাকা-গয়না বাঁচাতে গিয়ে স্বামীর হাতে খুন স্ত্রী, তিলজলার বাড়ি থেকে উদ্ধার গলা কাটা দেহ

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: তাঁর টাকাপয়সা এবং গয়নার দিকে বরাবরই লোভ ছিল স্বামীর। টুকটাক গয়না বিক্রি করে দেওয়া নিয়ে নিত্য অশান্তি হত পরিবারে। আর তার জেরেই স্ত্রী নাজনিন বেগম (৩৮)কে গলা কেটে খুন করে পালিয়ে যায় স্বামী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে তিলতলা থানা এলাকার হাজারগলি লেনে। মৃতার সন্তানের অভিযোগের ওপর ভিত্তি করে রবিবার রাতেই নারকেলডাঙা থেকে অভিযুক্ত স্বামী মহম্মদ সেলিমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ওই এলাকার পাঁচতলার ওপরে থাকতেন ওই দম্পতি। মহম্মদ সেলিমের বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগও ছিল স্ত্রী নাজনিন বেগমের। নিত্যদিন সে স্ত্রীর কাছে টাকা গয়না দাবি করত। রবিবার রাতে এই নিয়ে অশান্তি চরমে ওঠে। সোমবার ভোর রাতে বাড়ি থেকে মেলে নাজনিন বেগমের গলাকাটা দেহ। মৃতার এক প্রতিবেশী দেখতে পান, রক্তের মধ্যে পড়ে রয়েছে নাজনিন। তাঁর শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। ঘটনাস্থলের পাশ থেকে একটি ধারালো অস্ত্রও উদ্ধার করে পুলিশ।

আরও পড়ুন: পরীক্ষার্থীদের মুখ চেয়ে ১১,১২ সেপ্টেম্বর লকডাউন তুলে নেওয়ার আর্জি রাহুল সিনহার

তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কারণে ওই বধূ ও তাঁর স্বামীর নিত্য ঝামেলা হত। এরপরই জেরা করা হয় মৃতার স্বামী ধৃত মহম্মদ সেলিমকে। জেরায় অভিযুক্ত জানিয়েছে, স্ত্রীর কাছে টাকা ও গয়না চাওয়ার পরেও সে তা দিতে রাজি না হওয়ায় রাগের বশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রীকে খুন করে পালিয়ে যায়।

Related Articles

Back to top button
Close