fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আমার হাতে ১৭ হাজার শিক্ষকদের চাকরি আছে, আদালত অনুমতি না দিলে কিভাবে দেব: মমতা

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: বর্ধমানের পর এবার আসানসোল থেকেও একইভাবে কেন্দ্র সরকারে উপর আক্রমণাত্মক হয়ে উঠলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শত্রুঘ্ন সিনহা ও বাবুল সুপ্রিয়’র উদ্দেশে শুভেচ্ছা জানিয়ে সভা শুরু হলেও একের পর এক তীক্ষ্ণ ভাষায় কেন্দ্র সরকারকে লাগাতার আক্রমণ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী  বলেন, ধর্ম নিয়ে যিনি মন্তব্য করেছেন তাকে আমি ছাড়ব না। বিজেপির লোক ধর্ম নিয়ে কথা বললে তাকে গ্রেফতার করা হয় না। এদিন নাম না করে বিজেপির সাসপেন্ডেড নেত্রী নূপুর শর্মার বিরুদ্ধে তোপ দাগেন তিনি। এদিন মঞ্চ থেকেই তিনি প্রশ্ন তোলেন, সমাজকর্মী তিস্তা শীতলাবাদকে গ্রেফতার করা হল কেন? জুবায়ের আহমেদকে কেন গ্রেফতার করা হল?  এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেউ কিছু বললেই তাকে ইডি, সিবিআই দেখিয়ে দেওয়া হচ্ছে। অগ্নিবীরদের নিয়ে তিনি বলেন, দিচ্ছে চার মাসের ট্রেনিং, তার পর আর চার বছর পরে অগ্নিবীরদের রাখা যাবে না। অগ্নিবীরে সাধারণ পরিবারের ছেলেরা চাকরি পাবে না। চাকরি পাবে তাদের শাখার কিছু লোক। লোকসভা ভোট শেষ হলেই, অগ্নিবীরদের বলবে বাড়ি চলে যেতে। তারপরে রাজ্যগুলিকে দেখে নিতে বলা হচ্ছে। তোমাদের পাপ আমরা কেন নেব?

বর্তনামে এসএসসি, থেকে দুর্নীতি মামলায় জর্জরিত রাজ্য সরকার। এদিন সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে তিনি বলেন, চাকরির জন্য আমাদের পছন্দ হবে স্থানীয়রাই। আমার হাতে ১৭ হাজার শিক্ষকদের চাকরি রয়েছে। কিন্তু আদালত না দিলে আমি কীভাবে দেব? আদালত থেকে নির্দেশ আনলেই চাকরি হবে।  বামেদের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, আইনজীবী বিকাশরঞ্জনের কাছে যান। বলুন আপনারা চাকরি নিয়েছেন, আপনারা চাকরি দিন।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ত্রিপুরায় মানুষের চাকরি চলে যাচ্ছে। কেন্দ্র চাকরি কেড়ে নিচ্ছে। দেশে বেকারত্ব বাড়ছে আর রাজ্যে কর্ম সংস্থান বাড়ছে।  মহারাষ্ট্র সরকারের টালমাটাল অবস্থা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বলেন, কোটি কোটি টাকা দিয়ে মহারাষ্ট্র ভাঙছে। বিধায়কদের কেনাবেচা করছে বিজেপি।

আসানসোলের উন্নয়ন নিয়ে মমতা বলেন, আসানসোলের নতুন জেলা থেকে পুলিশ কমিশনারেট আমরা করেছি। মাল্টি ন্যাশনাল হাসপাতাল থেকে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় গড়েছি। আগামীদিনে অণ্ডাল বিমান বন্দর চালু হবে। দুর্গাপুর-পানাগড়-রানিগঞ্জ ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল মিউজিয়াম হবে। রানিগঞ্জে ১৫ হাজার গ্যাস সেল প্রকল্পে ১৫ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ। দুর্গাপুর গ্যাস-শেল অনুসন্ধান প্রকল্পে বিনিয়োগ হবে। বগটুইকাণ্ডে ১০ জনের চাকরি দিয়েছি। দেউচা-পাচামিতে ১ লক্ষ মানুষের কাজ হবে।

 

কেন্দ্রের আক্রমণ শানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,  বাংলা এগিয়ে তাই বিজেপি হিংসায় জ্বলছে। বিজেপি খালি চারদিকে ছবি লাগাচ্ছে, ছবি লাগাতে লাগাতে বিজেপি একদিন সাইনবোর্ড হয়ে যাবে। বাংলায় আমরা বাড়ি তৈরি করলাম, বাংলায় বাড়ি তৈরি করলে ক্ষতি কী?

সংবাদমাধ্যমকে নিশানা করে তিনি বলেন,  টাকার জন্য ডিজিট্যাল খুলে ব্যবসা না করে সঠিক খবর পরিবেশন করুন। আমরা আপনাদের কাছ থেকে সঠিক তথ্য চাই। মমতা বলেন, আমি সোশ্যাল নেটওয়ার্কের পক্ষে। তবে যারা ভালো খবর ছড়ায় আমি তাদের পক্ষে। আর বিজেপি সোশ্যাল মিডিয়ায় ফেক ভিডিও করে।  পিএম টাকার হিসেব নেই। ১১০০ কোটি টাকা দিয়ে বিজেপি অফিস বানায়। তার প্রশ্ন আপনাদের কাছে নেই, অথচ বাংলায় কেউ কিছু করলেই আপনাদের প্রশ্ন।

Related Articles

Back to top button
Close