fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তোমাকেই ভোট দেব ‘মমতা দি’ মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যঙ্গ পরিযায়ী শ্রমিকের, ভাইরাল ভিডিও

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: লালের উপরে কালো রঙের চেক জামা পরিহিত এক যুবক হেঁটে চলেছে সড়ক পথ ধরে। যুবকের ডান কাঁধে ঝোলানো রয়েছে বড় ব্যাগ ও গামছা। কয়েক জনের সঙ্গে সড়কপথ ধরে হাঁটতে থাকা ওই যুবককে মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলতে শোনা যায়, “১৭০০ কিলোমিটার পথ হেঁটে যাচ্ছি মমতাদি। আমার উচালনে ঘর। আগামী নির্বাচনে তোমাকেই ভোট দেব। কোনও ব্যাপার নেই।”

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়া যুবকের এই বক্তব্য ঘিরে বৃহস্পতিবার বিকাল  থেকে তুমুল শোরগোল পড়ে গিয়েছে পূর্ব বর্ধমানের  মাধবডিহি থানার উচালন এলাকায়।

উচালন গ্রামের বাসিন্দাদের কথায় জানা গিয়েছে, যে যুবক হাত নেড়ে মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে এই কথা গুলি বলছে তার বাড়ি উচালনের পশ্চিমপাড়ায়।

যুবকের নাম রেসিদুল সেখ ওরফে বাপন। ভাইরাল হওয়া ভিডিয়ো দেখে এলাকার লোকজনই যুবকে চিহ্নিত করে তার সবিস্তার পরিচয় ও ঠিকানা উদ্ধার করে। এলাকাবাসীরা আরও জানিয়েছেন, ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে বাপনের সঙ্গে শেখ তাইবুল নামে অপর এক ব্যক্তিও হাঁটছেন। আর ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি তোলা হয়েছে শেখ মোজাফ্ফর চৌধুরি নামে অন্য এক ব্যক্তির মোবাইলে। ওই তিনজন ও মঙ্গলকোটের দু’জন কর্মসূত্রে চেন্নাইয়ের এসআরএমসি পুলিশ স্টেশনের কাছে থাকতেন।

এ রাজ্য থেকে তারা নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে চেন্নাইতে কাজে গিয়েছিল। বৃহস্পতিবার উচালনের কয়েকজন বাপনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন চেন্নাই শহর থেকে বেরিয়ে সড়ক পথ ধরে হেঁটে চলার সময়ে তারা মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে ওই ভিডিওটি করে। পরে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘পোস্ট’ করে দেয়। মুহূর্তের মধ্যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। এলাকার লোকজনকে যদিও যুবকদের একজন জানিয়েছে, তারা বাজে কোনও কথা বলেনি। নিজেদের কষ্টের কথা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেছে বলে তারা জানিয়েছে।

এদিকে ভাইরাল হওয়া এই ভিডিয়ো নিয়ে জেলায়  রাজনৈতিক তরজাও শুরু হয়ে গিয়েছে। সিপিএমের জেলা কমিটির সদস্য বিনোদ ঘোষের দাবি, “পরিযায়ীদের সম্পর্কে সরকার কতটা উদাসীন তা সংক্ষিপ্ত আকারের এই বুদ্ধিদীপ্ত ভিডিওটিতে প্রকাশ পেয়েছে। যে ভিডিও হয়তো  রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের উষ্মার কারণ হতে পারে।

অন্যদিকে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও নিয়ে একই ভাবে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করেছেন জেলা বিজেপি সভাপতি সন্দিপ নন্দীও।

যদিও বিরোধীদের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করে তৃণমূলের জেলা সম্পাদক উত্তম সেনগুপ্ত বলেন, “পরিযায়ীদের ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সবার আগে উদ্যোগ নিয়েছেন। ট্রেনের ব্যবস্থা করছেন। তাঁদের জন্যে প্রকল্প ঘোষণা করেছেন। ওই পরিযায়ী শ্রমিকরা নিজেদের বাড়ি ফিরে এসে যাতে কাজ পান তাঁর জন্যেও মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন।”

Related Articles

Back to top button
Close