fbpx
হেডলাইন

শর্ত মানলেই দলে থাকবেন, মুখ্যমন্ত্রীকে শর্ত আরোপ শুভেন্দুর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সম্প্রতি রাজ্য রাজনীতির আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁকে দলে নেওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন সব দলই। লড়াইয়ে পিছিয়ে নেই তৃণমূলও। কিন্তু দলের সঙ্গে যে শুভেন্দুর ঠান্ডা লড়াই চলছে তা বুঝতে অসুবিধা নেই কারোর। বারে বারে মন্ত্রীর বক্তব্যে তা পরিস্কার। কিন্তু এই মুহূর্তে বিধানসভা নির্বাচনের আগে একেবারেই শুভেন্দু বাবুকে ছেড়ে দিতে নারাজ ঘাসফুল শিবির। এ কারণে বারবার দলের হেভিওয়েট সাংসদরা গোপনে বৈঠকে বসেছেন শুভেন্দু বাবুর সঙ্গে। তবে সূত্রের খবর, দলে থাকতে গেলে তার দেওয়া তিনটি শর্ত মেনে চলতে হবে বলেই সাফ জানিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

সূত্রের খবর তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই তিন শর্তের কথা জানিয়েছেন তিনি। সূত্রের খবর অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তিনি আর্জি জানিয়েছেন, প্রথমত, দলে থাকতে গেলে দলে তার গুরুত্ব বাড়াতে হবে। দ্বিতীয়তঃ সংগঠনকে পুরনো অবস্থানে পুনরায় ফিরিয়ে আনতে হবে। সর্বোপরি তিনি শর্ত দিয়েছেন ফের পুরনো জেলাগুলির দায়িত্ব তাঁকে দিতে হবে পাশাপাশি এবার থেকে তিনি সরাসরি নেত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন।

আরও পড়ুন- ছটপুজো…দুই শীর্ষ আদালতের কাছে জোর ধাক্কা খেলো রাজ্য সরকার

ইতিমধ্যেই শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যে দলের দূরত্ব তৈরি হয়েছে তা বিভিন্ন সভায় তার বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট হয়েছে। এরমধ্যে তৃণমূলে নির্বাচনী প্রকৌশলী প্রশান্ত কিশোর দেখা করতে গিয়েছিলেন শুভেন্দু বাবুর সঙ্গে। সেখানে গিয়ে তার বাবা শিশির অধিকারীর সঙ্গে দীর্ঘক্ষন আলোচনা করেছেন পিকে। এদিকে দলের দুই হেভিওয়েট সাংসদের সঙ্গে বৈঠকে শুভেন্দু বাবু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রশান্ত কিশোরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বলে সূত্রের খবর। এই মুহূর্তে তিনি একমাত্র দলনেত্রীর সঙ্গেই কথা বলে জানাতে চান তার সমস্যার কথা। এর পরেই তিনি তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে স্পষ্ট সিদ্ধান্ত নেবেন।

শুভেন্দু অধিকারীর ক্ষোভ দলে তার গুরুত্ব বাড়ানো জরুরি হলেও তা করা হয়নি। উল্টে কমেছে তার দায়িত্ব। এমনকি জেলাগুলি থেকে পর্যবেক্ষক তুলে নিয়ে কো-অর্ডিনেটর নিয়োগ করা হয়েছে। এসব বিষয়ে ক্ষোভ এবং অভিমান তৈরি হয়েছে তার মনে। যা নিয়ে দুই সাংসদদের সঙ্গে বৈঠকে উষ্মা প্রকাশ করেছেন তিনি। এবার তাই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি আলোচনার মাধ্যমে নিজের সমস্যার কথা তুলে ধরতে চান রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

 

Related Articles

Back to top button
Close