fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

ধূমপান করলে হারাতে হবে চাকরি, কড়া নির্দেশিকা রাজ্যের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ধূমপান করলেই হারাতে হবে চাকরি! শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। ঝাড়খন্ডের হেমন্ত সোরেন সরকার পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে যে, চাকরি করতে গেলে ধূমপায়ীদের বদভ্যাসটি ছাড়তে হবে। তবেই টিঁকে থাকবে চাকরি। শুধু এখানেই শেষ নয়। যে সব কর্মীরা ধূমপান করেন, তাঁদের এফিডেভিট দাখিল করে জানাতে হবে যে তাঁরা ধূমপান ছেড়ে দিচ্ছেন। শুধু ধূমপানই নয়। কোনও ধরণের তামাকজাত দ্রব্যই তাঁরা সেবন করতে পারবেন না বলে জানানো হয়েছে।

 

হেমন্ত সোরেন সরকার জানিয়েছে, প্রতিটি অফিস তামাক বর্জিত এলাকার তালিকায় পড়ছে। তাই কোনওভাবেই অফিসের মধ্যে বা অফিস চত্ত্বরে ধূমপান করা যাবে না বা অন্য কোনও তামাকজাত দ্রব্য সেবন করা যাবে না। রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের হলফনামা দাখিল করতে বলা হয়েছে এই বিষয়ে। ঝাড়খন্ড সরকারের নির্দেশ যে সব চাকরিপ্রার্থীরা সরকারি চাকরির পরীক্ষায় বসছেন, বা সরকারি চাকরি সদ্য পেয়েছেন, এই নিয়ম তাঁদের জন্যও বলবৎ হবে। জানা গিয়েছে, ২০২১ সালের ১ এপ্রিল থেকে এই নিয়ম জারি করা হবে। রাজ্যের স্বাস্ত্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ দফতরের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে জারি করা হয়েছে নোটিফিকেশন।

 

নোটিফিকেশনে জানানো হয়েছে তামাকজাত দ্রব্যের মধ্যে সিগারেট, বিড়ি, খৈনি, গুটখা, পান মশলা, জর্দা বা সুপুরি, হুঁকো, ই সিগারেট পড়ছে। ধোঁয়াহীন বা ধোঁয়াযুক্ত কোনও ধরণের তামাকজাত দ্রব্য সেবন করা যাবে না বলে কড়া নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য সরকার। জানা গিয়েছে সম্প্রতি রাজ্য মন্ত্রিসভায় এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরে স্টেট টোবাকো কন্ট্রোল কোঅর্ডিনেশন কমিটির বৈঠকের পর রাজ্যের মুখ্য সচিব সুখদেব সিং প্রশাসনিক আধিকারিকদের জানান, সেক্রেটারিয়েট, পুলিশের সদর দফতর, জেলা ও ব্লকগুলির সবকটি সরকারি অফিসকে তামাকজাত দ্রব্যহীন এলাকা ঘোষণা করতে হবে। সেই নির্দেশ মত কাজ শুরু করে প্রশাসন। প্রতিটি সরকারি অফিসে টোবাকো ফ্রি জোনের বোর্ড লাগিয়ে দেওয়া হয়। এবার দেশের অন্যান্য রাজ্যগুলি কি ধরণের পদক্ষেপ নেয় সেটাই

 

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close