fbpx
আন্তর্জাতিকবাংলাদেশহেডলাইন

বাংলাদেশে মৌলবাদীদের যে কোনো মূল্যে রুখে দেওয়া হবে, জানাল ১৫ বিশিষ্ট নাগরিক

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, ঢাকা: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে যারা ভাঙচুর করেছে, ‘ভুল ব্যখা’ দিয়ে যারা বাংলাদেশের সব ভাস্কর্য উৎপাটনের ঘোষণা দিয়েছে, যে কোনো মূল্যে সেই মৌলবাদীদের রুখে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ১৫ জন বিশিষ্ট নাগরিক।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠিয়ে তারা বলেছেন, ‘ভাস্কর্য কালের ও মানব সভ্যতার শিল্পম-িত সাক্ষ্য। মানব ইতিহাস এই ভাস্কর্যের মধ্য দিয়ে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে বিধৃত করে মানুষের পরম্পরা তৈরি করে। মানুষের সম্পর্ক শৈলীর অদৃশ্য সূত্র তৈরি করে, মানুষের ইতিহাস জীবন্ত হয়ে থাকে প্রতিটি জনপদে।’

তারা বলেন, ‘বিজ্ঞান ও শিল্পের এ অনিবার্য ভূমিকাকে প্রত্যাখান করে এ মৌলবাদী অপশক্তি বাংলাদেশকে একটি পশ্চাৎপদ জনপদে পরিণত করতে চায়। আমরা তাদের এ হীন প্রচেষ্টা যে কোনো মূল্যে রুখে দেব।’

হেফাজতে ইসলামীসহ কয়েকটি মৌলবাদী রাজনৈতিক দল সম্প্রতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের বিরোধিতায় সরব হয়েছে। যে কেউ ভাস্কর্য বসালে তা ‘টেনে হিঁচড়ে ফেলে দেওয়ার’ হুমকিও দেওয়া হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে। তাদের এ ধরনের বক্তব্যের প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যেই শুক্রবার গভীর রাতে কুষ্টিয়া শহরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি নির্মাণাধীন ভাস্কর্যের ভাঙচুর চালানো হয়।

ওই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ১৫ নাগরিকের বিবৃতিতে বলা হয়, “সম্প্রতি দেশের কতিপয় ধর্মীয় মৌলবাদের প্রবক্তা ও ৭১ এর পরাজিত ঘাতক-দালাল সাম্প্রদায়িক জঙ্গিগোষ্ঠী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙা ও ধংস করার যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে, তা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের অস্তিত্ব ও পবিত্র সংবিধান বিরোধী।

তারা বলেন, ‘আমরা সরকারকে এই মানবতার শত্রু ও দেশদ্রোহীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে সর্বোচ্চ শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।’

বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন, লেখক-গবেষক আবদুল গাফফার চৌধুরী, বাংলা একাডেমির সভাপতি অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান, কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, শিক্ষাবিদ ও সমাজবিজ্ঞানী অনুপম সেন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি সারওয়ার আলী, নাট্য ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, ফেরদৌসী মজুমদার, আবদুস সেলিম, মামুনুর রশীদ,নাসির উদ্দীন ইউসুফ, সারা যাকের, শিমুল ইউসুফ, প্রাবন্ধিক মফিদুল হক, শফি আহমেদ ও আবুল মোমেন।

Related Articles

Back to top button
Close