fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বাঙুরের টিকিটে নেগেটিভ, স্বাস্থ্য দফতরের রিপোর্টে পজিটিভ, বিপাকে বৃদ্ধ রোগী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সরকারি হাসপাতালগুলির কার্যকলাপে অদ্ভুত পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হচ্ছে বিভিন্ন রোগীকে। এই ঘটনার নবতম সংযোজন এমআরবাঙুর হাসপাতালের এক ঘটনা। ওই হাসপাতালের

 

জরুরি বিভাগের টিকিটে ‘‌নেগেটিভ’‌, কিন্তু স্বাস্থ্য দফতরের রিপোর্ট ‘‌পজিটিভ’‌ এল ৬৯ বছর বয়সী এক বৃদ্ধের। এই ঘটনায় স্বাভাবিকভাবে বিস্মিত বয়সি বৃদ্ধ ও তাঁর পরিবার।

 

পরিবার সূত্রে খবর, জ্বর, মাথাব্যথার সমস্যা নিয়ে ২৮ জুলাই ছেলের সঙ্গে বাঙুর হাসপাতালের ফিভার ক্লিনিকে যান ওই বৃদ্ধ। করোনা সন্দেহে তাঁর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সেদিনই জরুরি বিভাগের টিকিটে ইংরেজির বড় অক্ষরে সিলমোহর দেওয়া হয়— ‘কোভিড নেগেটিভ’। উপসর্গের জেরে আগে আইসোলেশনে থাকলেও হাসপাতালের আশ্বাসে বাড়ি ফিরে পরিবারের সঙ্গে স্বাভাবিক ভাবে থাকতে শুরু করেন বৃদ্ধ। কিন্তু মঙ্গলবার বিকেলে স্বাস্থ্য দফতরের এক ফোনেই পাল্টে যায় সব কিছু। রোগীর ছেলেকে ফোনে এক প্রতিনিধি জানান, তাঁদের কাছে আসা তথ্য অনুযায়ী তাঁর বাবা কোভিড পজিটিভ। আপাতত তিনি এখন বাড়িতে চিকিৎসাধীন।

 

রাজ্যের প্রথম সারির এক কোভিড হাসপাতালের এমন গাফিলতি কী করে হল?‌ বুধবার এম আর বাঙুরের সুপার ডাঃ শিশির নস্কর নিজেদের ভুলের কথা জেনে নিয়ে বলেন, বৃদ্ধের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ। স্বাস্থ্য দফতরই ঠিক রিপোর্ট দিয়েছে। হাসপাতালে যার গাফিলতিতে বৃদ্ধকে ভুল রিপোর্ট দেয়া হয়েছিল, তাকে খুঁজতে রোগীর পরিবার সাহায্য করলে সুবিধা হয়। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাঁরা যদি চান, তবে এখানেই রোগীর ভর্তির ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। বৃদ্ধকে শেষ পর্যন্ত ভর্তি করা হয়েছে এমআরবাঙুর হাসপাতালেই।

Related Articles

Back to top button
Close