fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কাকদ্বীপে করোনার থাবা, পুলিশের পক্ষ থেকে প্রচার ও নাকা চেকিং চলছে

বিশ্বজিত হালদার, কাকদ্বীপ:‌ গত কয়েকদিনে কাকদ্বীপ এলাকাতে বেশ কয়েকজনের করোনা পজিটিভ হওয়ায় আগামী শুক্রবার থেকে শহর এলাকায় পুরোপুরি লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নিল প্রশাসন।

 

মঙ্গলবার সন্ধেয় কাকদ্বীপ মহকুমা শাসক শৌভিক চট্টোপাধ্যায়ের পৌরহিত্যে একটি বৈঠক হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সুন্দরবন পুলিশ জেলার শীর্ষ আধিকারিকরাও। সেই বৈঠকে সাম্প্রতির করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। আলোচনা থেকে ফের লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ইতিমধ্যে কাকদ্বীপ শহরের চৌরাস্তা, হাসপাতালমোড় কন্টেনমেইন্ট জোনের তালিকায় ছিল। এবার পুরো শহর লকডাউনে আওতায় চলে আসবে। শহরের সমস্ত দোকানপাট বন্ধ রাখা হবে।

 

 

কেবলমাত্র ওষুধ, গ্যাস ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দোকান খোলা থাকবে। তবে নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হতে পারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের ক্ষেত্রে। ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক থাকবে। কিন্তু স্থানীয় অটো, টোটো বা ছোটগাড়ি পুরোপুরি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। এই সময় কোন জমায়েত করা যাবে না। বাড়ির বাইরে বের হলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই লকডাউন চলবে আগামী ২৬ জুলাই পর্যন্ত।

 

কাকদ্বীপের আইসি সুদীপ সিং বলেন,‘‌ প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত হয়েছে নতুন লকডাউনের জন্য। কারণ কাকদ্বীপ শহর খুব গুরুত্বপূর্ণ। সেকথা ভেবেই লকডাউন। কোন বাসিন্দার কিছু প্রয়োজন হলে ফোন করে সাহায্য চাইতে পারেন।’‌‌

Related Articles

Back to top button
Close