fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

স্বস্তি, করোনায় সুস্থতার নিরিখে রেকর্ড গড়ল ভারত

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের জেরে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু ও সংক্রমণের সংখ্যা। তবে এসবের মাঝেও কিছুটা স্বস্তির খবর শোনাল স্বাস্থ্য দফতর। মোট সংক্রামিতের নিরিখে এগিয়ে থাকলেও করোনামুক্তের বিচারে সব দেশের থেকে এগিয়ে রয়েছে ভারত।

 

রবিবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ৯২,৬০৫ জন জন নতুন করে কোভিড-পজিটিভ হয়েছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১০ লক্ষ ১০ হাজার ৮২৪ জন। ইতোমধ্যেই করোনা জয়ের পর সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে গিয়েছেন ৪৩ লক্ষ ৩ হাজার ৪৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৪ হাজার ৬১২ জন রোগী।

আরও পড়ুন: ২০১৮’র পর ২০২০.. হোয়াইট হাউসে এল বিষ মাখানো চিঠি! সংস্পর্শে এলে ৭২ ঘন্টার মধ্যে মৃত্যু নিশ্চিত

কেন্দ্রের দাবি, সরকারের পরিকল্পিত পদক্ষেপের জেরে মৃত্যুহারও কমে দাঁড়িয়েছে ১.৬১ শতাংশে। কিন্তু করোনা-পরিস্থিতির গোটাটাই যে এত সদর্থক নয়, সেটা আবার অন্য কিছু পরিসংখ্যানে স্পষ্ট। যেমন, শুধু সেপ্টেম্বরে ১৬,৮৬,৭৬৯ নয়া সংক্রমণের ঘটনা ধরা পড়েছে গোটা দেশে, মারা গিয়েছেন ২১,১৫০ জন যা কি না মোট প্রাণহানির এক-চতুর্থাংশ। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৫৩ লক্ষের বেশি।

 

গত দেড় মাস ধরে দেশে সংক্রমণের ধারা অব্যাহত রয়েছে। ৯২ হাজার ৬০৫ জন বৃদ্ধির জেরে দেশে মোট আক্রান্ত হলেন ৫৪ লক্ষ ৬২০। প্রথম স্থানে থাকা আমেরিকায় মোট আক্রান্ত ৬৭ লক্ষ ২৩ হাজার ও তৃতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে মোট আক্রান্ত ৪৪ লক্ষ ৯৫ হাজার।এর মধ্যে মহারাষ্ট্রে সংক্রামিতের সংখ্যা ১১ লক্ষ ৬৭ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। গত এক দিনে মুম্বই পুলিশের ১৫৩ জন ফের পজিটিভ হন, মৃত্যু হয় পাঁচ জনের। আর এক বিপর্যস্ত রাজ্য কর্নাটকের উপমুখ্যমন্ত্রী অশ্বথনারায়ণ সি এনের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। দিল্লিতেও শুক্রবার ৪,১২৭ জন ফের আক্রান্ত হন। পরিস্থিতি দেখে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনের মত, শব্দবন্ধের খেলায় আটকে না থেকে গোষ্ঠী সংক্রমণের কথা স্বীকার করে নেওয়া উচিত কেন্দ্রের। আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত রাজধানীর সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখা হচ্ছে। আর এক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল পুদুচেরিতে করোনায় মৃত্যুহার ২ শতাংশের কাছাকাছি।

 

Related Articles

Back to top button
Close