fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় করোনা আক্রান্ত হয় সরকারি আধিকারিকের মৃত্যু

মিল্টন পাল,মালদা: সরকারি আধিকারিকের করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু। যা নিয়ে বিভিন্ন মহলে শুক্রবার সকাল থেকেই ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জেলা প্রশাসনিক মহলে। মালদা মেডিক্যাল কলেজের করোনা বিভাগের চিকিৎসারত ছিলেন ওই সরকারি আধিকারিক। করোনা আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন। শুক্রবার নতুন করে করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০২।

স্বাস্থ্য দফতর এবং ওই মৃত আধিকারিকের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে,মৃত ব্যক্তির নাম মানিক মাঝি(৬৫)। তিনি মালদা সদর মহকুমা শাসকের দফতরে এসটি, এসসি সেলের আধিকারিক হিসাবে কর্মরত ছিলেন। অবসরের পরেও তাকে চুক্তিভিত্তিতে ওই বিভাগে বহাল রাখা হয়েছিল। গত পাঁচ দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত এবং শ্বাসকষ্টজনিত কারণে অসুস্থ মানিকবাবুকে মালদা মেডিক্যাল কলেজের করোনা বিভাগে ভর্তি করানো হয়। বৃহস্পতিবার তার মৃত্যু হয়েছে। মৃত ওই সরকারি আধিকারিকের বাড়ি মালদা শহরের ঘোড়াপীর এলাকায়।

মৃতের ছেলে গোপাল মাঝি জানান, বেশ কিছুদিন ধরে তার বাবা জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। এরপর গত ৫ দিন আগে মেডিক্যাল কলেজের করোনা বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার চিকিৎসা চলছিল। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বাবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। এরপর তার মৃত্যু হয়। মৃতদেহটি প্রশাসনিক নির্দেশ অনুযায়ী পঞ্চনন্দপুর গঙ্গার ঘাটে দাহ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:স্বপ্ন দেখেছিলেন একসঙ্গে বাঁচার… লকডাউনে কাজ হারিয়ে আত্মহত্যা নব দম্পতির

মালদায় পুজোর মরশুমে বিভিন্ন বাজার-হাট, শপিংমলে সামাজিক দূরত্ব উপেক্ষা করে চলছে কেনাকাটার পর্ব। এমনকী অধিকাংশ ব্যবসায়ীরা নিজেদের দোকানে স্যানিটাইজার ব্যবহার করছেন না বলে অভিযোগ। মাস্কবিহীন ক্রেতাদের কেনাকাটা করতে দেখা যাচ্ছে। এক্ষেত্রে কোনও রকম আপত্তিও জানাচ্ছেন না অনেক ব্যবসায়ীরা।
মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুন্ডু বলেন, প্রশাসনের নির্দেশ মেনে প্রতিটি ব্যবসায়ীকে তাদের দোকানে স্যানিটাইজার রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তারপরেও যদি কোনও ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে এরকম অভিযোগ ওঠে, অবশ্যই আমরা বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখব। মানুষকে সচেতন করার কাজও করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close