fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় ভিন রাজ্য ফেরত শ্রমিকদের কোয়ারেন্টাইন করা হলেও করোনা পরীক্ষার দাবিতে রাজ্য সড়ক অবরোধ

মিল্টন পাল, মালদাঃ লক ডাউনে আটকে থাকা ভিন রাজ্যের শ্রমিকদের জেলায় ফিরিয়ে পরীক্ষা করা হচ্ছে না। এবার শ্রমিকেরা করোনা পরীক্ষার দাবি নিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালো কয়েকশো শ্রমিক। ভিন রাজ্য ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকেরা নিজেদের লালারসের নমুনা সংগ্রহের দাবিতে রাজ্য সড়ক অবরোধের সামিল হলেন। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর থানা মহেন্দ্রপুর এলাকার চাচোল – হরিশ্চন্দ্রপুর রাজ্য সড়কে। ঘটনায় প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিদের আশ্বাসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।

 

 

বিক্ষোভকারী পরিযায়ী শ্রমিকদের বক্তব্য, ভিন রাজ্য থেকে তাদের গ্রামের বাড়িতে ফেরার চার থেকে পাঁচ দিন হয়ে গেল । তারপর কেউ রয়েছেন হোম কোয়রেন্টাইনে, আবার কেউ রয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে । কিন্তু তাদের কারোরই লালারসের নমুনা সংগ্রহ করেনি স্বাস্থ্য কর্তারা। এই অবস্থায় কারা করোনাতে সংক্রামিত আছে তাও সঠিক ভাবে বুঝতে পারছেন না তাঁরা। তাই অবিলম্বে তাদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার ব্যবস্থার দাবি জানিয়ে এদিন ওই এলাকার রাজ্য সড়ক অবরোধ করেন ভিন রাজ্য পরিযায়ী শ্রমিকেরা।এদিন বিক্ষোভকারী পরিযায়ী শ্রমিক দিলবার শেখ, সাদ্দাম শেখ, মরতুজ শেখ বলেন, তাদেরকে এলাকার একটি স্কুলে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত কোনো মেডিকেল টেস্ট হয় নি । এবং খাবার দেওয়া হচ্ছে না। তাই তারা অবিলম্বে মেডিকেল টেস্টের দাবি জানিয়েছেন।

 

 

এদের বিক্ষোভকারী পরিযায়ী শ্রমিকেরা রাজ্য সড়কে বসে পরেন। দুই ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলে অবরোধ আন্দোলন। পরে এই অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তারা ।দীর্ঘক্ষণ আলোচনার পর প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেন বিক্ষোভকারীরা।

 

বিক্ষোভকারী পরিযায়ী শ্রমিকদের অভিযোগ, পাঁচ দিন হয়ে গেল তারা এলাকায় এসেছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে তাদের কোনও পরীক্ষা হয় নি। হরিশ্চন্দ্রপুর থানা থেকে বলা হয়েছিল নিজ নিজ গ্রামে ফিরে গিয়ে স্থানীয় স্কুলে থাকতে হবে ভিন রাজ্য ফেরত শ্রমিকদের। সেখানেই পরীক্ষা হবে। কিন্তু সেটা এখনো হয় নি। এমনকি কোয়ারেন্টিন সেন্টারগুলিতে খাওয়ারের ব্যবস্থা করা হয় নি। বাড়ির লোকেরা তাদের খাবার দিয়ে যাচ্ছেন। এসব নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে এদিন রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান শতাধিক রাজ্য ফেরত শ্রমিকেরা। হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লক রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান বলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের কোয়ারেন্টাইনে থাকা আবশ‍্যক। তবে তাদের খাওয়ার ব‍্যবস্থা নিজেদের থেকেই করতে হবে।

 

হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লকের বিডিও অনির্বাণ বসু জানিয়েছেন, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলোতে শুধু থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোন খাওয়ারের ব্যবস্থা করা হয় নি । সংশ্লিষ্ট এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ বিষয়টি দেখছে। ভিন রাজ্য ফেরত শ্রমিকদের মধ্যে যাদের উপসর্গ দেখা যাবে কেবলমাত্র তাদেরই লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close