fbpx
কলকাতাহেডলাইন

ডেঙ্গু দমনে শহরের ছাড়া হবে গাপ্পি মাছ বাদ যাবে না সমস্ত ফাউন্টেন

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রতি বছরই এ সময়ে কলকাতায় ডেঙ্গু র প্রকোপ বাড়ে। কিন্তু এই বছর ডেঙ্গু ও করোনা এক সাথে থাবা বসিয়েছে। তাই পুরসভা বাড়তি সচেতনতা অবলম্বন করতে উদ্যোগি। তাই পরিকল্পনা করে এবার শহরের বিভিন্ন ফোয়ারা গুলিতে ও গপ্পি মাছের চারা ছাড়ার পরিকল্পনা করেছে। সোমবার পুরভবনে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয়। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের অন্যতম সদস্য অতীন ঘোষ, দেবাশিস কুমার সহ অন্যান্য আধিকারিকরা।

বৈঠক শেষে অতীন ঘোষ জানান, শহর কলকাতার যে সমস্ত উদ্যানে ফাউন্টেন রয়েছে সেখানে যাতে জল জমে ডেঙ্গুর মশা না জন্ম নিতে পারে সেজন্য ছাড়া হবে গাপ্পি মাছ। তিনি আরও বলেন বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, নির্মীয়মান আবাসনগুলিতে জল জমছে কিনা সেই বিষয়ে কড়া নজরদারি চালাবে পুরকর্তৃপক্ষ। যদি কোথাও কর্তৃপক্ষের গাফিলতির জন্য জল জমার ঘটনা সামনে আসে সেক্ষেত্রে ৪৯৬এ ধারা অনুযায়ী নোটিশ পাঠানো হবে সংশ্লিষ্ট সংস্থা বা বাড়ির মালিকদের যে সমস্ত বাড়িগুলি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে সে সমস্ত বাড়ির মালিকদেরও পাঠানো হবে চিঠি।

আরও পড়ুন: বাড়িতে বসেই করা যাবে করোনার পরীক্ষা, খোলা বাজারে অ্যান্টিজেন কিট বিক্রির অনুমতি রাজ্যের

এদিকে শহর কলকাতাতে বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে এখনো পর্যন্ত শহর কলকাতাতে আক্রান্তের সংখ্যা ৫২৩৬ জন । আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৩২৭০ জন। এই মুহূর্তে কলকাতাতে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬০০।

তবে আশার কথা বস্তি অঞ্চল- ঘনবসতিপূর্ণ অঞ্চলগুলি নিয়ে আপাতত চিন্তিত নয় পুরকর্তৃপক্ষ। কারণ কোন বস্তিতেই করোনার মত ছোঁয়াচে রোগ মহামারী আকার নেয়নি বলে দাবি কর্তৃপক্ষের। পুর আধিকারিকদের একাংশের কথায় বস্তিতে করোনা দমনের ক্ষেত্রে কড়া হাতে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে,যার দরুন কোথাও মহামারী আকার ধারণ করতে পারেনি এই রোগ।

Related Articles

Back to top button
Close