fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

চোপড়ার ঘটনার তৃণমূল-বিজেপি তরজা শুরু শিলিগুড়িতে

কৃষ্ণা দাস, শিলিগুড়ি: শনিবার রাতে উত্তর দিনাজপুরে চোপরার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু উত্তরবঙ্গে। রবিবার ঘটনার তীব্র নিন্দা করে, গোটা ঘটনার দায় তৃণমূল সরকারের ওপর  চাপিয়ে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন দার্জিলিং এর সাংসদ রাজু বিস্ত। অন্যদিকে, ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বিজেপি’র অভিযোগকে খন্ডন করে দায়িত্বজ্ঞানহীন বলে কটাক্ষ করেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব।
রবিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সাংসদ রাজু বিস্ত সদ্য মাধ্যমিক উত্তির্ণ ছাত্রীকে ধর্ষণ ও খুনের পেছনে তৃণমূল সরকারকেই দায়ি করেছেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তার বক্তব্য, “সম্প্রতি চোপড়ায় অবৈধ অনুপ্রবেশ বৃদ্ধি এবং নানান অপরাধ বৃদ্ধি পেয়েছে। এই  অপরাধিরা সরকারের ছত্রছায়ায় অপরাধ করে চলেছে। বিশেষত মহিলাদের ওপর ঘটে যাওয়া অপরাধ  বৃদ্ধি পেয়েছে। তবুও পশ্চিমবঙ্গ সরকার এদিকে সামান্যতম দৃষ্টিপাত করেন নি। মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে একজন মহিলা থাকা সত্ত্বেও বর্তমানে পশ্চিমবাংলায় নারী নির্যাতন অনেক বেড়ে গেছে। তার কারণ, তৃণমূল সরকার তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে আইন-শৃঙ্খলা বারবার পরিবর্তন করছে।  আইনের শাসনের পরিবর্তে পশ্চিমবঙ্গে টিএমসির শাসনকে তাদের তাণ্ডবলীলা  চালানোর অলিখিত অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সংবিধানকে উপেক্ষা করে অপরাধিদের সুরক্ষা, নিরাপত্তা  এবং রাজনৈতিক আশ্রয় দিচ্ছে তৃণমূল সরকার।”
রাজ্যে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন অপরাধের ঘটনায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর হস্তক্ষেপও দাবী করেন রাজু বিস্ত। অন্যদিকে, ঘটনার দুঃখ প্রকাশ করে নির্যাতিতার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব। পাশাপাশি, বিজেপি’র অভিযোগকে আমল দিতে নারাজ তিনি। তার বক্তব্য, বিজেপির দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্যের কোনও উত্তর দিতে চান না। যা ঘটনা ঘটেছে তা দুঃখ জনক, কিন্তু তা নিয়ে রাজনীতি করতে চান না গৌতম বাবু। দোষীদের নিশ্চিৎ ধরা হবে এবং দেশের আইন অনুযায়ী শাস্তি হবে বলে বক্তব্য তার। তার অভিযোগ, বিজেপি যেকোন ঘটনা নিয়েই রাজনীতি করে। এখানেও তাই করতে চাইছে। কিন্তু তৃণমূল এধরণের ঘটনা নিয়ে রাজনীতি করতে নারাজ বলে জানান গৌতম দেব।

Related Articles

Back to top button
Close