fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

করোনা আবহে কাটছাঁট স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে, কমবে ট্যাবলো থেকে অতিথির সংখ্যা

২০/২৫ মিনিটের মধ্যেই অনুষ্ঠান শেষ করার প্রস্তাব রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরকে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আবহে আজ পরিস্থিতি পাল্টে গিয়েছে। সব উৎসবের আনন্দই আজ ফিকে। করোনা নামক অতিমারী আজ মানুষের জীবনের সমস্ত আনন্দটুকু কেড়ে নিয়েছে। প্রত্যেক বছর কলকাতার রাজপথে মর্যাদার সঙ্গে স্বাধীনতা দিবস পালিত হয়ে থাকে। আর এই বিশেষ দিনকে সামনে থেকে চাক্ষুষ করতে ছুটে আসে হাজার হাজার মানুষ। কিন্তু করোনা আবহে রেড রোডে স্বাধীনতা দিবসের উদযাপনের অনুষ্ঠানকে যতটা সম্ভব জমায়েত মুক্ত রাখা হচ্ছে। তাই রেড রোডে দর্শক ঢোকায় এবছর অনুমতি দেওয়া হয়নি।

সূত্রের খবর, শুধুমাত্র রাজ্যের মন্ত্রী, আমলা এবং ডিজি-সিপি-সহ পদস্থ পুলিশ কর্তারাই উপস্থিত থাকবেন অনুষ্ঠানে। থাকবেন কয়েকজন সেনা অফিসারও। রেড রোডে উপস্থিত থাকার কথা ১০০ থেকে ১২০ জন অতিথির। প্রত্যেকের বসার আসনের মাঝে কম করে সাত ফুট দূরত্ব রাখা হবে।

আরও পড়ুন: সংক্রমণের আতঙ্কের মধ্যেই মালদা হাসপাতাল সহ একাধিক জায়গায় যত্রতত্র পড়ে আছে পিপিই কিট!

পতাকা উত্তোলন ছাড়া মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে হওয়া থেকে অন্য অনুষ্ঠানের সময়ও কাটছাঁট হচ্ছে। কমছে ট্যাবলোর সংখ্যাও।
২০ থেকে ২৫ মিনিটের মধ্যেই অনুষ্ঠান শেষ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরকে। আর এরপর নেওয়া হবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

লালবাজার সূত্রে জানা খবর, এবারের অনুষ্ঠানে ডাক্তার, নার্স, পুলিশ, পুরকর্মী-সহ মোট ২৫ জন ফ্রন্টলাইন যোদ্ধাকে বিশেষ স্মারক দাওয়া হবে। যারা করোনা আবহে মানুষের সেবা করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছিলেন এবং পরে সুস্থ হয়ে আবার কাজে যোগ দিয়েছেন তাদের মধ্যে থেকেই বাছাই করা ২৫ জন করোনা যোদ্ধাকে স্মারক তুলে দেওয়া হবে।

প্রতি বছরের মতো আটোঁসাটোঁ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানকে ঘিরে। কয়েক হাজার পুলিশ কর্মী মোতায়েন থাকছে। গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় থাকছে পুলিশ পিকেট। শুধুমাত্র রেড রোডেই ৫০টির বেশি সিসিটিভি ক্যামেরা থাকছে। এছাড়াও শহরে ঢোকা ও বের হওয়ার প্রত্যেকটি জায়গায় নাকা চেকিং চলবে।

Related Articles

Back to top button
Close