fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্ত ৩২৭৪, মৃত ৫৭, সুস্থ ৩০৮৪

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সুস্থতার হার বাড়লেও রাজ্যে ফের বাড়ল মৃত্যু। রবিবারের বুলেটিন অনুযায়ী, ফের রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমণের হদিশ ৩২৭৪ জনের, মৃত্যু ৫৭ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৩০৪৮ জন। শুক্রবারের ২৪ ঘন্টায় ৩২৭৪ জন নতুন আক্রান্তে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৩৮৮৭০ জন। এদিন আরও ৫৭ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ২৭৯৪ জনের। ২৪ ঘন্টায় আরও ৩০৪৮ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১০৮০০৭ জন। সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৭.৭৮ শতাংশে।

এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতাতে ৫৭৫ জন, উত্তর ২৪ পরগনাতেও ৫৭৫ জন, হাওড়ায় ১৭৭ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১৮৮ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ২২০ জন, দক্ষিণ দিনাজপুরে ১৬৫ জন, হুগলিতে ১৬১ জন, উত্তর দিনাজপুরে ১১১ জন সুস্থ হয়েছেন। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ২৮০৬৯ জন। এদিন হাসপাতালে করোনা চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ১৬৯ জন।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৭০ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্ট করা হল ১৫৬১৩১১ জনের। যার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে রেকর্ড সংখ্যক ৩৭১৪৯ জনের। রাজ্যের ৮৪ টি করোনা হাসপাতাল, ২৯ টি সরকারি এবং ৫৫ টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১২০৩৫ টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ১২৪৩ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৭৯০ টি। তার ৩৬.৫১ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন। সরকারি ৫৮২ টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ২৫৩৩ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১০৭০৭০ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৪৮১৪০ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৪৩৬১৮৫ জনকে। রাজ্যের ২০০ টি সেফ হোমে ১১৫০৭ টি বেড রয়েছে এবং তাতে ১৯৮৯ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, এদিন রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৭ জনের। বুলেটিন অনুযায়ী এ দিন ৮ জনের মৃত্যু কলকাতায়, ১৮ জন উত্তর পরগনায়, ৫ জন হাওড়ায়, ৬ জন হুগলিতে। মালদা পশ্চিম মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৩ জন করে, উত্তর দিনাজপুর ও পূর্ব মেদিনীপুরে ২ জন করে, আলিপুরদুয়ার কালিম্পং জলপাইগুড়ি মুর্শিদাবাদ নদিয়া পূর্ব বর্ধমান পশ্চিম বর্ধমানে ১ জন করে মোট ২০ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য, এছাড়া এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ৬৯৬ জন, কলকাতায় ৫৬৩ জন, হাওড়ায় ১৫৯ জন, হুগলিতে ১৮০ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১৮৭ জনের উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের সব জেলাতেই।

Related Articles

Back to top button
Close