fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা মোকাবিলায় ডায়মন্ড হারবারে সেফ হোম প্রকল্পের উদ্বোধন

বাবলু প্রামানিক, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: করোনা সংক্রমণ দিনে দিনে বেড়েই চলেছে। এই অবস্থায় একদিকে যেমন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বাড়ছে, তেমনি প্রাথমিকভাবে পরীক্ষার করার কেন্দ্রগুলিরও চাহিদা বাড়ছে। এই সংখ্যা কমানোর উদ্দেশ্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্বাস্থ্য বিভাগ এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে ডায়মন্ড হারবার ময়দানে তৈরি হল সেফ হোম প্রকল্প। শনিবার উদ্বোধন করেন ডায়মন্ডহারবার মহকুমা শাসক সুকান্ত সাহা। উপস্থিত ছিলেন ডায়মন্ড হারবার স্বাস্থ্য জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক দেবাশীষ রায় ও প্রশাসনের কর্তারা।

১০০ শয্যা নিয়ে শুরু হয়েছে এই উদ্যোগ মূলত উপসর্গহীন অথবা অল্প উপসর্গযুক্ত ব্যক্তিরাই এখানে থাকতে পারবেন। এখানেই তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকবে। এতদিন সামান্য উপসর্গ দেখা দিলেই বিভিন্ন হাসপাতালে ভিড় জমাত সাধারণ মানুষ। তাতে যেমন হাসপাতালে বেড পাওয়া সমস্যা হত। তেমনি পরীক্ষা করতে লেগে যেত দীর্ঘ সময়। সেই সমস্যা মেটানোর জন্য এই উদ্যোগ বলে জানান মহকুমা শাসক। এখন থেকে প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিলে জ্বর হলে এখানে রাখা হবে‌ এখানেই পরীক্ষা করার জন্য চিকিৎসকদের একটি দল।

স্বাস্থ্য অধিকর্তা দেবাশীষ রায় বলেন, হাসপাতালে রোগীদের ভিড় কমানোর জন্য অল্প সংক্রমণ অথবা সংক্রমণ ব্যক্তিরা প্রাথমিক চিকিৎসা হবে এখানেই। এখান থেকে যদি উপসর্গ দেখা দেয় কোন ব্যক্তি তৎক্ষণাৎ হাসপাতালে ভর্তি করা হবে। পাশাপাশি কয়েকদিনের মধ্যে ডায়মন্ড হারবার মেডিকেল কলেজে শুরু হতে চলেছে কোভিড ১৯ কিট পরীক্ষার কেন্দ্র। এই পরীক্ষা কেন্দ্র শুরু হলে অনেক তাড়াতাড়ি উপসর্গ আছে কিনা জানা যাবে। প্রাথমিকভাবে ১০০ শয্যা শুরু হলেও আগামী দিনে প্রয়োজন অনুযায়ী আড়াইশো শয্যা করতে প্রস্তুত রয়েছে ডায়মন্ডহারবার প্রশাসন। যারা থাকবেন এখানে তাদের গৃহের পরিবেশ তৈরি করে রাখা হবে। টিভি এবং থাকছে গান শোনার ব্যবস্থা। সবকিছু দেখভালের জন্য সেচ্ছাসেবী সংগঠন সদস্যরাও থাকছে এবং পরিবহনের জন্য থাকছে অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থাও। সব মিলিয়ে করোনা আবহে সংক্রমণ যেমন বাড়ছে তেমনি রোগীর সংখ্যা কমানো এবং তাদেরকে দ্রুত চিকিৎসা প্রদানের উদ্দেশ্যেই এই উদ্যোগ নিল প্রশাসন।

Related Articles

Back to top button
Close