fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বাইপাসে গতি বাড়াতে এবার শহরে ৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি হবে ৬ লেনের নতুন ফ্লাইওভার

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: জনসংখ্যার সঙ্গে যান বৃদ্ধিতে ক্রমশ গতি রুদ্ধ হচ্ছে শহরের। ইএমবাইপাসকে শহরের অন্যতম সচল রাস্তা হিসেবে চালু করেও যানসংখ্যার কারণে গতি কমেছে। তাই এবার ৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ইএম বাইপাসের উপরে হতে চলেছে শহরের অন্যতম বড় ৬ লেনের ফ্লাইওভার তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য। তিন কিলোমিটার লম্বা এই উড়ালপুল ৩ বছরে শেষ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ সংস্থা রাইটস ইতিমধ্যেই এই উড়ালপুলের বিষয়ে ড্রাফট পরীক্ষা করে পাঠিয়ে দিয়েছে কেএমডিএ-র কাছে।

প্রসঙ্গত, শহরের গতি বাড়াতে একাধিক উড়ালপুলের প্রস্তাব করেছে রাজ্য নগরায়োন্নয়ন দফতর। তার মধ্যে অন্যতম হল বাইপাসের উপর এই নয়া উড়ালপুল। নিত্যদিন ভিআইপি বাজার থেকে অভিষিক্তা মোড় পর্যন্ত অফিস টাইমে ব্যাপক যানজট মেটাতে প্রয়োজন ছিল এই উড়ালপুলের। যেহেতু বাইপাসের মধ্যবর্তী অংশ দিয়ে গড়িয়া থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত মেট্রো রেলের নির্মাণ রয়েছে, তাই সেখানে নয়া কাঠামো নির্মাণে অসুবিধা রয়েছে। তাই বাইপাসের দু’প্রান্ত ধরে বানানো হবে এই উড়ালপুল। দুটি প্রান্তই হতে চলেছে ৩ লেন করে। ফলে যে সংখ্যক গাড়ি চলাচল করে, বাইপাস ধরে, তা যাতায়াতে কোনও অসুবিধা হবে না বলেই দাবি কেএমডিএ আধিকারিকদের।

আরও পড়ুন:করোনা আবহে কাটছাঁট স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে, কমবে ট্যাবলো থেকে অতিথির সংখ্যা

ভিআইপি বাজার থেকে ওঠা ফ্লাইওভার নামবে মেট্রো ক্যাশ অ্যান্ড ক্যারিতে। এই অংশ থেকে আর একটি প্রান্ত নামবে অভিষিক্তা মোড়ে। যা যুক্ত করবে আনোয়ার শাহ রোডকে। এই অংশের সর্বাধিক উচ্চতা হবে প্রায় ২০ মিটারের কাছাকাছি। মেট্রোর ১২ মিটারের থেকেও উঁচু হচ্ছে এই উড়ালপুলের পিলার, বলে জানিয়েছে রাইটস। তবে যে সমস্ত গাড়ি গড়িয়ার দিক থেকে আসবে সায়েন্স সিটির দিকে, তাদের সরাসরি এসে এই প্রান্তে নামতে হবে। তাদের নামার জন্যে আলাদা কোনও প্রান্ত থাকছে না। অন্যদিকে, এই সেতুর নীচে রুবি মোড়ে বানানো হচ্ছে ৫.৫ মিটারের পথচারীদের জন্য একটি স্কাইওয়াক। সব মিলিয়ে ফের গতি ফিরে পাবে ইএমবাইপাস বলে দাবি কেএমডিএ আধিকারিকদের।

Related Articles

Back to top button
Close