fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, পূর্ব বর্ধমানে কোভিড ১৯ হাসপাতাল চালুর সিদ্ধান্ত নিল প্রশাসন

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য এবার পূর্ব বর্ধমানেই গড়ে তোলা হচ্ছে স্বয়ংসম্পূর্ণ ‘কোভিড ১৯’ হাসপাতাল। শুক্রবার উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। এতদিন এই জেলার করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য পাঠাতে হত পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরের কোভিড হাসপাতালে। প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তে ভিন জেলার ‘কোভিড -১৯’ হাসপালের উপর ভরসা করার দিন এবার শেষ হতে চলেছে।

পরিযায়ী শ্রমিকরা ভিন রাজ্য থেকে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ফিরতেই লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রশাসনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বিগত কয়েকদিনে প্রায় ৬ হাজার পরিযায়ী শ্রমিক জেলায় ফিরেছে। তারপর থেকে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭১ ছুঁইয়েছে। আক্রান্তরা দুর্গাপুরের কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এখনও একের পর এক শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে চেপে দলে দলে পরিযায়ী শ্রমিকরা জেলায় ফিরছেন। তার আগে বাসে ও অন্যান যান বাহনে চড়েও বহু পরিযায়ী শ্রমিক ফিরেছে এই জেলায়। সব মিলেয়ে এদিন পর্যন্ত ২০ থেকে ২২ হাজার পরিযায়ী জেলায় ফিরে এসেছে। এরপরেও ২৫টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে চড়ে আরও অনেকে ফিরবে। এই পরিস্থিতিতে আর কোনও ঝুঁকি নিতে নারাজ পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন।

জেলাশাসক বিজয় ভারতী শুক্রবার জানালেন,“বর্ধমান শহর লাগোয়া গাংপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালকে  ‘প্রি-কোভিড’ হাসপাতাল হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছিল। ওই হাসপাতালটি আর  ‘প্রি -কোভিড’ হাসপাতাল থাকছে না। সেটিকেই কোভিড হাসপাতাল করা হচ্ছে। ওখানেই এবার থেকে জেলার করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য দফতরের কছে আবেদন জানানো হয়েছে ১২৮ শয্যার ওই হাসপাতালে সিসিইউ, আইসিইউ ও পর্যাপ্ত ভেন্টিলেটর রয়েছে।

এছাড়াও শিশু ও হৃদরোগের চিকিৎসারও ব্যবস্থা রয়েছে ওই হাসপাতালটিতে।পাশাপাশি বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে ‘প্রি- কোভিড’ বিভাগ চালু করার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে জেলাশাসক জানিয়েছেন, জেলায় এখন ৩৬ টি কন্টেনমেন্ট জোন আছে। কোয়ারেন্টিন সেন্টার চালু রয়েছে ৪৩টি।এখন থেকে জেলার ২১৫টি পঞ্চায়েত এলাকার স্কুলে কোয়ারেন্টাইনে সেন্টার চালু করা হচ্ছে।” জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব রায় জানিয়েছেন, ‘জেলার ‘কোভিড -১৯’ হাসপাতাল চালু হলে দ্রুত করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা সম্ভব হবে।

Related Articles

Back to top button
Close