fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশবাংলাদেশহেডলাইন

ভারত-বাংলাদেশ যৌথ নদী কমিশনের বৈঠক চলতি বছরেই

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, ঢাকা: তিস্তার জল বন্টন চুক্তি নিয়ে আটকে না থেকে বরং দু’দেশের মধ্যে চলমান অন্যান্য নদীর জল বন্টনের আলোচনা বন্ধ রাখবে না বাংলাদেশ। এ কারণে চলতি বছরেই ভারত-বাংলাদশের অভিন্ন নদী নিয়ে আলোচনার জন্য যৌথ নদী কমিশনের বৈঠকের বিষয়ে আশাবাদী ঢাকা ও দিল্লি।

মঙ্গলবার বাংলাদেশের সচিব মাসুদ বিন মোমেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত বিক্রম কুমার দোরাইস্বামীর সঙ্গে প্রথম সৌজন্য সাক্ষাতের পর একথা জানিয়েছেন।

তিস্তা নিয়ে অবশ্যই আলোচনা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের অনেক অভিন্ন নদী আছে এবং একইসঙ্গে অন্যান্য নদীর বিষয়েও অগ্রগতি আছে। সেগুলোও আমরা একইসঙ্গে সেরে ফেলার চেষ্টা করবো। তিস্তার জন্য অন্যান্য অগ্রগতি থামিয়ে রাখা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। সুতরাং, যেখানে অগ্রগতি হচ্ছে সেই জায়গাগুলোতে আমরা এগিয়ে যাবো। তিস্তার ক্ষেত্রে টেকসই সমাধানের জন্য কাজ করবো।’

তিনি বলেন, ‘বেশ কিছু বৈঠক সামনে হবে। জয়েন্ট রিভার কমিশনের বৈঠক অনেক দিন হয় না। যদি সম্ভব হয় এ বছর কমিশনের বৈঠক হবে। তবে তার আগে জলসম্পদ মন্ত্রকের সচিবদের বৈঠক হতে হবে। জল সচিব কবির বিন আনোয়ারের দিল্লিতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু উনি যেতে পারেননি। আগে জল সচিবের বৈঠক হবে, তারপরে জেআরসি হবে। এ বছরের মধ্যে চেষ্টা করবো।’

এয়ার বাবলের বিষয়ে কাজ চলছে জানিয়ে বিদেশ সচিব বলেন, ‘আমরা খুব কাছে পৌঁছে গেছি। আমরা কিছু অনুরোধ করেছি, তারা ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে।’ সিভিল এভিয়েশনসহ অন্যান্য কর্তৃপক্ষের কাজ হলো এটিকে চূড়ান্ত করা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আশা করি যারা মেডিক্যাল রোগী ও তাদের সঙ্গীরা যেতে পারবেন। এখন একজন রোগীর সঙ্গে একজন অ্যাটেনডেন্ট যেতে পারেন। আমরা একজন রোগীর সঙ্গে যেন দুই জন অ্যাটেনডেন্ট যেতে পারেন, তার জন্য অনুরোধ করেছিলাম। তারা এখন তিন জনে সম্মত হয়েছে।’

Related Articles

Back to top button
Close