fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দুই দেশের সংঘর্ষে চিন সেনার ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে: প্রাক্তন সেনাপ্রধান

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন মুখোমুখি সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হয়েছেন। এই ঘটনায় গোটা দেশজুড়ে তীব্র নিন্দার ঝড় উঠেছে। এর পাশাপাশি উঠেছে চিনা সামগ্রী বয়কটের ডাক। তবে অনেকেরই অজানা যে সেদেশেরও সেনা মারা গেছে। সেনা সূত্র উদ্ধৃত করে চিনের ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে। তবে এবার সেই খবরেই সিলমোহর দিলেন কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ ও জাতীয় সড়ক প্রতিমন্ত্রী জেনারেল ভি কে সিং।

তিনি বলেন, ‘‘আমাদের দিকের লোকজন বলছেন, চিনের দিকে মৃতের সংখ্যা ৪৩। আমাদের উচিত চিন সেনার মৃতের সংখ্যা নিয়ে আমাদের লোকের কথাই বিশ্বাস করা।’’ অর্থাৎ ভি কে সিংও নিজে থেকে এই সংখ্যাটা বলেননি। যে হেতু সেনা সূত্র এবং সংবাদ মাধ্যমগুলি এই সংখ্যা বলছে, তাই সেটাকেই মান্যতা দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের গত ১৫ তারিখ সন্ধ্যার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত গলওয়ান উপত্যকায় চিন ও ভারতীয় সেনার মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিল। পরের দিন সকালের দিকে ভারতের দিকে এক কর্নেল এবং দুই সেনা জওয়ানের মৃত্যুর খবর মেলে। পরে রাতের দিকে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, গুরুতর আহত অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ প্রচণ্ড ঠান্ডায় পড়ে থাকায় আরও ১৭ জন সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। অর্থাৎ ভারতের দিকে মৃতের সংখ্যা ২০।

এই ঘটনার পর চিনের সেনা ‘পিপল্‌স লিবারেশন আর্মি’ (পিএলএ)র মুখপাত্র কর্নেল ঝাং শুইলি শুধু বলেছিলেন, গলওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষে দু’পক্ষেই হতাহত হয়েছে। অর্থাৎ চিনের দিকেও হতাহত হয়েছে। কিন্তু চিনের কত জন সেনা বা অফিসারের মৃত্যু হয়েছে, তা নিয়ে সরকার বা সেনা কোনও তরফেই স্পষ্ট কোনও বার্তা নেই। সংঘর্ষের পরের দিন থেকেই ভারতীয় সেনাকে উদ্ধৃত করে একাধিক সংবাদ সংস্থা ও সংবাদ মাধ্যম দাবি করে আসছিল, চিনের দিকে ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। যদিও কোনও মাধ্যমই কোনও সেনা আধিকারিককে উদ্ধৃত করে এই সংখ্যা বলেনি।

এদিন মৃতের সংখ্যার পাশাপাশি চিনকে কটাক্ষ প্রাক্তন সেনাপ্রধান আরও বলেন, ‘‘চিন বরাবরই হতাহতের সংখ্যা গোপন করে। ’৬২-র যুদ্ধের সময়ও মৃতের প্রকৃত সংখ্যা স্বীকার করেনি বেজিং।’’

Related Articles

Back to top button
Close