fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বেকায়দায় ‘চিন’, রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠকের আরজি চিনা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: এবার বেকায়দায় ‘ড্রাগন’। সীমান্তের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সম্প্রতি চুশুল সেক্টরে দক্ষিণ প্যাংগং লেক সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকার পুরোপুরি দখল নিয়েছে ভারতের সেনাবাহিনী। আর এতেই সুর নরম করে আলোচনার টেবিলে বসতে চাইছে চিন। চিনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ওয়েই ফেঙ্গি শুক্রবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠক চেয়েছেন। সূত্রের খবর, দিল্লির তরফে বৈঠকের জন্য সম্মতি দেওয়া হতে পারে। আশা করে হচ্ছে এই বৈঠকের পর প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় সম্পূর্ণভাবে সেনা সরানোর কাজ সংঘটিত হতে পারে।শুক্রবার অর্থাৎ আজ এই বৈঠক হওয়ার কথা। উলেখ্য, তিনদিনের ‘Shanghai Cooperation Organisation’ সামিটে অংশ নিতে গত বুধবার রাশিয়া পৌঁছন রাজনাথ সিং। তবে চিনা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কোনও বৈঠক তাঁর কর্মসূচীতে ছিল না।

আরও পড়ুন: ফের উত্তপ্ত কাশ্মীর, সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে গুরুতর আহত ভারতীয় সেনা অফিসার

বিশ্লেষকদের মতে, চিন-ভারত সংঘাত মেটাতে পর্দার আড়ালে থেকে চেষ্টা চালাচ্ছে রাশিয়া। বেজিং আর নয়াদিল্লি দুইয়ের উপরই প্রভাব থাকায় এই কাজে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে মস্কো। আর সাউথ ব্লকও চাইছে রুশ হস্তক্ষেপে বিবাদ মেটাতে। কিন্তু পূর্ব লাদাখে ভারতীয় ভূখণ্ড থেকে চিনা সেনা না সরায় কড়া অবস্থান নিয়েছে নয়াদিল্লি। সীমান্তে সংঘর্ষের আবহে স্বাভাবিক সম্পর্ক বজায় রাখা সম্ভব নয় বলেই মনে করছেন প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে নীতি নির্ধারকরা। এছাড়া, প্রয়োজনে যুদ্ধ করতে পিছপা হবে না দেশ সেই কথাও সাফ করে দিয়েছেন ভারতের সামরিক কর্তারা। দক্ষিণ প্যাংগং লেক সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় ভারতীয় ফৌজের পদক্ষেপ সেদিকেই ইঙ্গিত করছে। এই বার্তা সাফ বুঝতে পেরেছে চিন। বেজিং ভাবেনি কয়ক দশকের ‘সহিষ্ণুতার’ নীতি পালটে এভাবে কড়া জবাব দেবে ভারত।

Related Articles

Back to top button
Close