fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

 যুদ্ধের আবহ! সীমান্তে যুদ্ধবিমানসহ অতিরিক্ত ৩০ হাজার সেনা মোতায়েন করল ভারত

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ক্রমশ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠছে ভারত-চিন সীমান্তে। কোনওরকম ত্রুটি রাখতে চাইছে না ভারত। কার্যত যে কোনওরকম পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে তৈরি হয়ে রয়েছে বাহিনী৷ ভারত-চিন সীমান্তে লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় চিনা সেনার সামনে চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে দেশকে সুরক্ষা দিচ্ছে প্রায় ৩০ হাজার সেনা জওয়ান ৷

 

 

উল্লেখ্য,  জুন মাসে লাদাখের গালওয়ান ভ্যালিতে চিন সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ হন এক কর্নেলসহ ২০ জন জওয়ান ৷ জখম হন প্রায় ৭০ জনেরও বেশি ৷ এরপর থেকেই সীমান্তে সুরক্ষা বাড়িয়েছে সেনা ৷ সীমান্তে পাঠানো হয়েছে অতিরিক্ত ৩টি ব্রিগেড ৷ সূত্রের খবর, সাধারণ সময় ওই সীমান্তে থাকে ৬টি ব্রিগেড ৷ তার মধ্যে লাদাখের নিয়ন্ত্রণরেখায় সেনার ২ টি বিভাগ ভাগ করা থাকে ৷ তাদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে টহলদারিতে পাঠানো হয় ৷ কিন্তু, ১৫ জুন সীমান্তে সংঘর্ষের পর সেখানে আরও 3 ব্রিগেড সেনা পাঠানো হয়েছে ৷ প্রতিটি ব্রিগেডে আছে ৩ হাজারটি দল ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী ৷ ওই তিনটি অতিরিক্ত ব্রিগেডে রয়েছে প্রায় ১০ টি সেনাদল ৷ তাদের বেশিরভাগই এসেছে পঞ্জাব, হিমাচল প্রদেশ ও উত্তরপ্রদেশ থেকে

 

 

সূত্রের খবর, ২০১৭ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সার্জিকাল স্ট্রাইকে যে সেনারা গিয়েছিলেন তাদেরই লাদাখে পাঠানো হয়েছে ৷ ভারতীয় প্যারা সেনাদের এক ডজনেরও বেশি স্পেশাল ফোর্স রেজিমেন্ট থেকে এসেছে যাদের বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে । শুধু তাই নয়, গালওয়ান ভ্যালিতে সংঘর্ষের পর অ্যামেরিকা থেকে আনা হয়েছে M-777 আলট্রা লাইট হাওইৎজ়ার ৷ এই প্রকার যু্দ্ধবিমান এতটাই মারাত্মক যা পাহাড়ি এলাকাতেও 28 থেকে 30 কিমি অবধি দূরত্ব থেকে গুলি ছুঁড়তে পারে ৷ এছাড়াও C-17 গ্লোবমাস্টার III এয়ারক্র্যাফ্ট আনা হয়েছে ৷ যা সেনা , কমব্যাট যান ও T-72 বা T-90 – র মতো ভারি ট্যাঙ্কগুলি তুলতে পারবে ৷

 

 

সেনা সূত্রে খবর, সীমান্তে আনা হয়েছে রাশিয়ান সুখোই ৩০ যুদ্ধবিমান, MIG 29 জেটস , ভারি জিনিস তোলার ইলিউসিন 76 বিমান, AN 32 পরিবহন বিমান , MI 17 ইউটিলিটি বিমান ও BMP-2/2K ইনফ্যানট্রি কমব্যাট যান ৷ দৌলত বেগ ওলডি সেক্টরে সেনার ক্ষমতা বাড়াতে C-130J সুপার হারকিউলিস এয়ারক্র্যাফ্ট আনা হয়েছে ৷

 

Related Articles

Back to top button
Close