fbpx
আন্তর্জাতিকএকনজরে আজকের যুগশঙ্খদেশ

সন্ত্রাসে আর্থিক সাহায্য রুখতে আলোচনায় ভারত-আমেরিকা

নিজস্ব প্রতিনিধি: নানাভাবে বিভিন্ন দেশের কাছ থেকে আর্থিক সাহায্য নিয়ে সন্ত্রাসবাদী কাজ চালিয়ে যায় জঙ্গিরা। আর্থিক সাহায্য বন্ধ হয়ে গেলে অনেকটাই ধাক্কা খাবে জঙ্গিদের কার্যকলাপ। এবার সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে আর্থিক মদত ঠেকাতে ভারত ও আমেরিকা দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বাড়ানোর বিষয় নিয়ে বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের সঙ্গে আলোচনা সারলেন আমেরিকার অর্থসচিব জ্যানেট ইয়ালেন। ওয়াশিংটনে অষ্টম ভারত-আমেরিকা ‘ইকনমিক অ্যান্ড ফিনান্সিয়াল পার্টনারশিপ’ বৈঠকে এর পাশাপাশি উঠে এসেছে দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক আর্থিক সহযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়টিও। কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমেরিকা সফরে গিয়ে বৈঠক করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে। এবার দুটি দেশ একে অপরের সঙ্গে আর্থিক সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসল।

বৈঠকের পরে টুইটে ভারতের অর্থ মন্ত্রক জানিয়েছে, সন্ত্রাসে আর্থিক সহায়তা বন্ধ করতে ও অবৈধ লেনদেনের মতো দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণের পথ নিয়ে নির্মলা সীতারামনের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে জ্যানেট ইয়ালেনের। পরে এক যৌথ বিবৃতিতে দু’দেশ বলেছে, ‘‘পরস্পর তথ্য আদানপ্রদান ও সহযোগিতার বৃদ্ধির মাধ্যমে আমরা জঙ্গি সংগঠনগুলিকে আর্থিক সহায়তার ক্ষেত্রে রাশ টানতে লড়াই চালাব।’’ বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘‘দু’পক্ষই অর্থনৈতিক ব্যবস্থাকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে আন্তর্জাতিক নজরদারি সংস্থা ‘ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স’ (এফএটিএফ)-এর নির্দিষ্ট করে দেওয়া নীতির উপরে গুরুত্ব দেবে।’’

কোভিড পরিস্থিতিতে এটিই ছিল প্রথম ভারত-আমেরিকা ‘ইকনমিক অ্যান্ড ফিনান্সিয়াল পার্টনারশিপ’ বৈঠক। যেখানে নির্মলার সঙ্গে ছিলেন রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার গভর্নর শক্তিকান্ত দাসও। বিশ্বব্যাপী আর্থিক সঙ্কট মোকাবিলায় দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক সহযোগিতায় একমত হয়েছে দু’পক্ষ। অর্থ মন্ত্রক টুইট করে বলেছে, ‘‘বৈঠকটিতে আমরা একাধিক বিষয় নিয়ে অত্যন্ত লাভজনক আলোচনা করেছি। এর মধ্যে রয়েছে অতিমারির প্রভাবে ঘটা অর্থনৈতিক দূরবস্থা কাটিয়ে ওঠার উপায়, আর্থিক নিয়ন্ত্রণ ও প্রযুক্তিগত সহায়তা বৃদ্ধি, বহুপাক্ষিক সমঝোতা বাড়ানোর পথ, পরিবেশ রক্ষায় তহবিলের গুরুত্ব, সন্ত্রাসে অর্থ নিয়োগের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মতো বিষয়।”

Related Articles

Back to top button
Close