fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশশিক্ষা-কর্মজীবনহেডলাইন

ভারত তথ্য সুরক্ষায় কোনও আপোষ করবে না: কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: সীমান্তে সংঘর্ষের পরেই কোনও রকম আভাস না দিয়ে চিনের ৫৯টি অ্যাপ বাতিল করেছিল কেন্দ্র সরকার। এবার চিনা অ্যাপ বাতিলকে সামনে রেখে দেশের সুরক্ষার প্রসঙ্গকে সামনে এনে বক্তব্য রাখলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। রবিবার ঠাকুর প্রসাদ মেমোরিয়ালে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ বলেন,  তথ্য দেশের সম্পদ। ভারতের নাগরিকদের তথ্য আমাদের দেশের সার্বভৌমিকতাকে রক্ষা করে। তাই এই প্রসঙ্গে কোনও আপোষ নয়।

এদিন চিনা অ্যাপগুলি বাতিল প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, জাতীয় সুরক্ষা ও তথ্যের নিরাপত্তার কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। এই সময়ে ভারতীয় সংস্থাগুলি এই ধরণের অ্যাপ তৈরিতে উৎসাহ দেখালে দেশীয় প্রযুক্তি উন্নত হবে।

আরও পড়ুন:সুশান্ত মামলায় এবার ময়দানে নামলেন নির্ভয়ার আইনজীবী, মোদি-শাহের কাছে CBI তদন্তের আবেদন সীমার

প্রসঙ্গত, লাদাখ সীমান্তে  উত্তেজনার মধ্যে রাতারাতি চিনা অ্যাপ বাতিল করে ভারত।  রীতিমতো বিপাকে পড়ে যায় চিন। মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ভারত ৫৯ টি চিনা অ্যাপ বাতিল করে দেয়। ভারতে ফোর জি টেলি পরিষেবা আপগ্রেড করার টেন্ডার কেড়ে নেয় চিনা সংস্থা হুয়াওয়েই-এর থেকে। সেই সঙ্গে স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছে, ভারতে কোনও হাইওয়ে প্রকল্পে চিনা সংস্থাকে কাজ করতে দেওয়া হবে না।

ভারতের তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, ভারতীয় গোয়েন্দারা জানিয়েছেন যে, অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মে থাকা মোবাইল অ্যাপ অপব্যবহার করে গ্রাহকদের গোপনীয়তা লঙ্ঘনের চেষ্টা করা হচ্ছে। সেই কারণেই সবদিক বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

আরও পড়ুন:বাংলাদেশের হিন্দুরা মহা আতঙ্কে আছে, দাবি হিন্দু মহাজোটের

এদিকে কেন্দ্রের তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক এই সংস্থাগুলিকে তিন সপ্তাহের মধ্যে কীভাবে এই সংস্থাগুলি কাজ করত, এই সংস্থাগুলির অর্থনৈতিক পরিকাঠামো কী, তাদের তথ্য রাখার প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চেয়ে প্রশ্ন পাঠিয়েছে। অবৈধ তথ্য রাখা হত কিনা এই সবও খতিয়ে দেখছে কেন্দ্র।

এমনকী সংস্থাগুলি সেই অভিযোগ খারিজ করার স্বপক্ষে কি যুক্তি দিচ্ছে, তার ওপরেও নজর রাখবে কেন্দ্র সরকার।

 

Related Articles

Back to top button
Close