fbpx
দেশহেডলাইন

কুর্নিশ! মরদেহ কাঁধে পাথরের রাস্তা ২৫ কিমি পথ অতিক্রম করে বাড়ি পৌঁছে দিল সেনাবাহিনী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: মরদেহ কাঁধে নিয়ে পাথরের রাস্তা দীর্ঘ ২৫ কিমি পথ অতিক্রম করে বাড়ি পৌঁছে দিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। এই ঘটনা সামনে আসতেই সেনাবাহিনীকে কুর্নিশ জানিয়েছে দেশবাসী।

উত্তরপ্রদেশের পিথোরাগর জেলার স্যুনি গ্রামে এক ৩০ বছরের তরুণের মৃত্যু হয়৷ খবর আসে আটিবিপির ১৪ কর্পোসের কাছে৷ খবর পাওয়া মাত্রই ওই জায়গায় পৌঁছয় বাহিনী৷ তবে প্রচন্ড বৃষ্টির ফলে সব রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়৷ পরিস্থিতি বুঝে জাওয়ানরা সিদ্ধান্ত নেন স্ট্রেচারে করে ওই তরুণের দেহ বয়ে নিয়ে যাবেন তাঁরা৷ স্থানীয়দের সাহায্যে মুনসিয়ারি থেকে স্যুনি,দীর্ঘ ২৫ কিমি পথ তাঁরা হেঁটে অতিক্রম করেন৷ মুনসিয়ারির রাস্তা খুবই খারাপ৷ পাথরে ভরা৷ তবে সেই রাস্তায় সন্তর্পনে ওই তরুণের দেহ নিয়ে অতিক্রম করেন আইটিবিপির জওয়ানরা৷

চিনের সীমান্তবর্তী উত্তরাখণ্ডের অনেক অঞ্চল সহ ভারত-চিন সীমান্তের নিরাপত্তা ও পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে রয়েছে আইটিবিপি৷ এই বাহিনী খুবই দক্ষ৷ তবে শুধু সীমান্ত রক্ষা নয়, অনেক সময়ই তাঁরা মানবিকতার স্বার্থে অন্য বিভিন্ন কাজও করেন। যার জন্য এই  বাহিনীর কাজ শুধুই প্রশংসিত হয় না, অন্যদের কাছে আদর্শ মনে করা হয়৷

এবার এমনই কাজ করলেন ইন্দো তিব্বত সীমান্ত পুলিশ বাহিনী(ITBP)৷ ৮ ঘণ্টা ধরে ২৫ কিলোমিটার পথ হেঁটে এক ব্যক্তির দেহ তাঁর বাড়িতে পৌঁছে দিলেন আটিবিপি জওয়ানরা৷ ঘটনা উত্তরাখাণ্ডের৷ স্যুউনি গ্রাম থেকে প্রত্যন্ত মুনসায়রি গ্রামে আত্মীয়দের কাছে দেহ পৌঁছলেন তাঁরা৷

৩০ আগস্ট দুপুরের আগে শুরু হওয়া যাত্রা সেই দিনই সন্ধে সাতটার সময় শেষ হয়। মোট ৮ সেনা দেহটি নিয়ে প্রথমে যান চলাচল করে এমন রাস্তায় পর্যন্ত পৌঁছয়৷ এবং তারপরে নিহতের স্বজনদের কাছে নিয়ে যায়। নিহতের শেষকৃত্য হয় মৃতের গ্রাম বঙ্গপানীতে।

শুধুমাত্র সীমান্ত রক্ষা নয়, স্থানীয় মানুষদের সাহায্য করার প্রশিক্ষণও পান আইটিবিপি জওয়ানরা৷ যাতে তারা সীমান্তবর্তী অঞ্চলে যেখানে পাহাড় বা তুষারে ঢাকা পথ রয়েছে সেখানে গ্রামবাসীদের প্রকাশ্যে সাহায্য করতে পারে এই বীর সেনারা৷

Related Articles

Back to top button
Close