fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

মরিশাসের তীরে এসে উল্টে গেল তেলবাহী জাহাজ, সমুদ্র আইন লঙ্ঘনে গ্রেফতার ভারতীয় নাবিক

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্কঃ  নীল সমুদ্রে কালো তেলের প্রবাহ।মরিশাসের নীল জলরাশিতে একটি জাপানি‌ মালবাহী জাহাজ ভেঙে অন্তত ১০০০ টন জ্বালানি তেল মিশেছে। মঙ্গলবার রাতে সেই জাহাজের ক্যাপ্টেন এবং সহকারী ক্যাপ্টেনকে গ্রেফতার করল মরিশাসের পুলিশ। জাপানি জাহাজটির ক্যাপ্টেন একজন ভারতীয়। নাম সুনীল কুমার নন্দেশ্বর। সহকারী শ্রীলঙ্কার নাগরিক।
পুলিশের মুখপাত্র শিবা কুথেন জানিয়েছেন, জাহাজের ক্যাপ্টেন এবং সহকারিকে আদালতে তোলা হয়েছে। বুধবার থেকে শুরু হবে তদন্ত। জাহাজের সমস্ত কর্মীদের জেরা করা হবে। জলদস্যুগিরি এবং সমুদ্র আইন লঙ্ঘনের চার্জ আনা হয়েছে ধৃতদের বিরুদ্ধে। ২৫ আগস্ট তাঁদের ফের আদালতে তোলা হবে।


দুর্ঘটনাগ্রস্ত জাহাজটি জাপানি সংস্থা নাগাসাকি শিপিংয়ের। নাম ‘এম ভি ওয়াকাশিও’। সিঙ্গাপুর থেকে ব্রাজিল যাচ্ছিল সেটি। ২৫ জুলাই একটি প্রবালপ্রাচীরে আঘাত করে। তার ফলে জাহাজে ফাটল দেখা দেয়। সমুদ্রের ঢেউয়ের চাপে সেই ফাটল বাড়তে থাকে। রবিবার জাহাজটি দু’‌টুকরো হয়ে ডুবে যায়।

জাহাজটিতে জ্বালানি হিসেবে প্রায় তিন হাজার টন তেল ছিল। ৬ অগস্ট থেকে জ্বালানি তেলের ট্যাঙ্কের একটি অংশ থেকে প্রায় হাজার টন তেল জলে মিশছে। সেই ভিডিও এখন ভাইরাল। পরিবেশবিদদের চিন্তা, এই তেল জলে মেশায় সামুদ্রিক প্রাণী, উদ্ভিদদের ব্যপক ক্ষতি হবে। সমুদ্র থেকে যতটা সম্ভব তেল পরিষ্কার করার চেষ্টা হয়েছে। তার পরেও ১০০০ টন তেল জলে মিশেছে।

প্রশ্ন হচ্ছে, জাহাজটি দ্বীপরাষ্ট্র মরিশাসের এত কাছ দিয়ে যাচ্ছিল কেন?‌ তদন্তে সে বিষয়টা খতিয়ে দেখবে পুলিশ। সোমবার জাপান সমুদ্র থেকে তেল পরিষ্কারের জন্য ছ’‌জনের একটি বিশেষজ্ঞ দল পাঠিয়েছে। প্রশ্ন উঠছে জাহাজটি তীরের এত কাছ দিয়ে যাচ্ছিল কেনো? প্রশ্ন উঠছে মরিশাস সরকারের নৌ-সামুদ্রিক ব্যর্থতা নিয়েও।

Related Articles

Back to top button
Close